• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৪ অক্টোবর ২০২০ ১৬:৩৬:৩৩
  • ১৪ অক্টোবর ২০২০ ১৬:৩৬:৩৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

আরবে এরদোয়ানের জনপ্রিয়তা তুঙ্গে

রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। ফাইল ছবি

আরব দেশগুলোর জনগণের মধ্যে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের জনপ্রিয়তা হুহু করে বাড়ছে। সম্প্রতি আরবদের ওপর এমন জরিপ পরিচালিত করেছে দোহা ও বৈরুত-ভিত্তিক গবেষণা সংস্থা ‘আরব সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড পলিসি স্টাডিজ’। 

এশিয়া ও আফ্রিকায় আরব বিশ্বের ১৩টি আরব রাষ্ট্রে জাতীয়, আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক ইস্যুতে সাধারণ আরব জনগণের মনোভাব জানতে সংস্থাটি এ জরিপ পরিচালনা করে। এমন খবর প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৫৮ শতাংশই মনে করেন, অন্য যে কোনো দেশের নীতির তুলনায় তুরস্কের মধ্যপ্রাচ্যে নীতি আরব স্বার্থের পক্ষে। ফিলিস্তিন, সিরিয়া এবং লিবিয়ায় তুরস্কের বিতর্কিত সামরিক হস্তক্ষেপও বেশিরভাগ আরব জনগণ সমর্থন করছে।

ওই প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, মিশরকে সঙ্গে নিয়ে উপসাগরীয় বেশিরভাগ আরব দেশ তুরস্ককে কোণঠাসা করার উপায় খুঁজতে তৎপর হলেও সিংহভাগ আরব জনগণ মনে করে তুরস্কের রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানই তাদের সবচেয়ে বড় শুভাকাঙ্ক্ষী। 

এই জনমত জরিপে তুরস্ক এবং প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের ব্যাপারে আরব দেশের সরকার ও জনগণের এই বিপরীতমুখী অবস্থান উন্মোচিত হয়েছে। 

এদিকে চীন ও জার্মানির মধ্যপ্রাচ্য নীতির প্রতি আরবদের মনোভাব সবচেয়ে ইতিবাচক। চীনের নীতির প্রতি সমর্থন প্রকাশ করেন ৫৫ শতাংশ আর জার্মানির নীতির পক্ষে ৫২ শতাংশ মতামত দেন জরিপে অংশ নেয়া উত্তরদাতারা। অপরদিকে, আমেরিকার মধ্যপ্রাচ্য নীতি নিয়ে সবচেয়ে নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি প্রকাশ পেয়েছে।

এ বিষয়ে মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক রাজনীতির বিশ্লেষক সামি হামদি বলেন, তুরস্ক রাষ্ট্রের চেয়ে ব্যক্তি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান যে সাধারণ জনগণের বিরাট একটি অংশের কাছে গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠছেন তা নিয়ে সন্দেহের অবকাশ নেই।

তিনি আরো বলেন, সন্দেহ নেই তুরস্কের গ্রহণযোগ্যতা, বিশেষ করে সাধারণ প্রান্তিক আরব জনগোষ্ঠীর কাছে, বাড়ছে। আর এই গ্রহণযোগ্যতা বাড়ার পেছনে তুরস্ক রাষ্ট্রের চেয়ে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের ভাবমূর্তি প্রধান ভূমিকা রাখছে।

বাংলা/এনএডি/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0856 seconds.