evaly
  • বিদেশ ডেস্ক
  • ০৫ নভেম্বর ২০২০ ১৭:২৩:২৯
  • ০৫ নভেম্বর ২০২০ ১৭:২৩:২৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ইনফ্লুয়েঞ্জা-নিউমোনিয়ার ভ্যাকসিনের চাহিদা বৃদ্ধি

ছবি : প্রতিকী

করোনা (কোভিড-১৯) মতোই ইনফ্লুয়েঞ্জাও ভাইরাসজনিত রোগ। তবে রোগের উপসর্গ এক হলেও করোনার মতো প্রাণঘাতী নয়। করোনার মতোই দ্রুতই সংক্রমণ ঘটায়। আবার নিউমোনিয়ার ব্যাকটেরিয়া থেকে সংক্রমিত হলেও বয়স্ক ও অন্য রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরাই আক্রান্ত হন বেশি।

তাই মহামারীকালে ও শীতের আগে ইনফ্লুয়েঞ্জা ও নিউমোনিয়ার ভ্যাকসিন বা প্রতিষেধক নেয়ার প্রবণতা বাড়ছে। কারণ, ইনফ্লুয়েঞ্জা বা নিউমোনিয়ার মাধ্যমে যেন করোনার সংক্রমণ না ঘটে। এমন খবর প্রকাশ করেছে ভারতের গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন।

যারা তীব্র শ্বাসকষ্ট ও অ্যাজমার মতো সমস্যায় ভোগেন তাদের নিউমোনিয়ায় ভোগার শঙ্কা বেশি। এছাড়াও ৬৫ বছরের বেশি বয়সের প্রবীণ নাগরিকদের নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও অনেক বেশি। এই আশঙ্কা থেকেই দুই রোগের ভ্যাকসিন নেয়ার সংখ্যা ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী। গৃহ চিকিৎসক বা সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকদের কাছে অনেক এই ভ্যাকসিন নিচ্ছেন। দেশটির কয়েকটি সরকারি হাসপাতালে এই দু’টি ভ্যাকসিন পেতে রীতিমতো লম্বা লাইন দেখা গেছে।

ইতোমধ্যে কোলকাতার বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীসহ সবাইকে এই দুই রোগের ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে।

সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রোটোকলে না থাকলেও এই দুটি ভ্যাকসিন যাতে সেখানকার সব সরকারি কোভিড হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের দেয়া যায় তার চিন্তাভাবনা চলছে। এ বিষয়ে খুব শীঘ্রই সিদ্ধান্ত নেবেন শীর্ষ কর্মকর্তারা।

এ বিষয়ে হাসপাতালটির জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, করোনা এবং ইনফ্লুয়েঞ্জার উপসর্গ একই। শুরুতে বিশেষজ্ঞরাও তা বুঝতে পারেন না। তাই শুরুতেই যদি ইনফ্লুয়েঞ্জা ভ্যাকসিন নেয়া থাকে তবে সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

প্রতিবছর ইনফ্লুয়েঞ্জার ভ্যাকসিন নিতে হয়। কিন্তু নিউমোনিয়া প্রতিষেধক একবার নিলে পাঁচ বছরের মধ্যে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমবে যায়। আর অধিকাংশ বয়স্ক করোনা রোগী দ্রুত নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হন।

এ বিষয়ে ডা. সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, নিউমোনিয়া ভ্যাকসিন আগে থেকেই নেয়া থাকলে করোনা মারাত্মকভাবে সংক্রমণ ঘটাতে পারে না।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1198 seconds.