evaly
  • অর্থনৈতিক প্রতিবেদক
  • ০৫ নভেম্বর ২০২০ ২২:১৬:৪২
  • ০৬ নভেম্বর ২০২০ ১০:৪৯:৪৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

অবমূল্যায়ন রোধে ডলার কিনছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক

ছবি : সংগৃহীত

মার্কিন ডলার কিনে বাজারে নগদ অর্থ সরবরাহ করছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ডলারের অবমূল্যায়ন রোধে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ২০২০-২১ অর্থবছরের জুলাই-অক্টোবর, প্রথম চার মাসে ৩৬০ কোটি ডলার ক্রয় করা হয়।

ওই একই সময়ে স্থানীয় বাজার মুদ্রার সরবরাহ স্থিতিশীলতায় ৩০ হাজার কোটি টাকা নগদ অর্থ ছাড় করেছিল ব্যাংক ও আর্থিক খাতের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা। তবে এ কারণে দেশে মূল্যস্ফীতি বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সংশ্লিষ্টরা জানান, দেশে রেমিট্যান্সপ্রবাহ বৃদ্ধি পাওয়া ও ডলারের চাহিদা কমে যাওয়ায় বাজারে উদ্বৃত্ত ডলার থেকে যাচ্ছে। এছাড়াও বিনিয়োগ ও আমদানি কমে গেছে। ফলে বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবহার করতে না পারায় ব্যাংকগুলোকে বাধ্য হয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে ডলার নিয়ে আসছে। আর কেন্দ্রীয় ব্যাংকও তা বাধ্য হয়ে কিনছে। এসব কারণেই বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ চার হাজার ১০০ কোটি ডলার অতিক্রম করেছে। এতে করে বাজারে টাকার প্রবাহ বেড়ে যাচ্ছে। যার ফলে মূল্যস্ফীতি বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কাও রয়েছে।

বাংলাদেশে ব্যাংকের তথ্য মতে, অর্থবছরে প্রথম চার মাসে ৩ দশমিক ৬ বিলিয়ন (৩৬০ কোটি) মার্কিন ডলার কিনেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এসময় ৩০ হাজার ২৪০ কোটি টাকা নগদ অর্থ ছেড়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। মহামারি করোনার ক্ষতিগ্রস্ত উদ্যোক্তা ব্যবসায়ীদের সহায়তায় ও অর্থনীতি পুনরুজ্জীবিত করতে ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়নে নীতিমালা শিথিলকরণসহ বিভিন্ন উপায়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ৩৮ হাজার কোটি টাকা বাজারে সরবরাহ করবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, বর্তমান পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডলার কেনা ছাড়া কোনো উপায় নেই। বাজারে চাহিদা কমে যাওয়ায় ডলার উদ্বৃত্ত থাকছে। যা না কিনলে ডলারের দাম কমে যাবে। এতে করে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন প্রবাসীরা। এজন্য তারা রেমিট্যান্স পাঠাতে নিরুৎসাহিত হবেন। এছাড়াও রপ্তারি আয়ও কমে যাবে। তাই বাজার থেকে ডলার কিনতে হচ্ছে। তবে এর নেতিবাচক প্রভাবও রয়েছে, আমদানি ব্যয় বেড়ে যাচ্ছে।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1421 seconds.