evaly
  • বিদেশ ডেস্ক
  • ১৬ নভেম্বর ২০২০ ০৯:৩৮:৪৪
  • ১৬ নভেম্বর ২০২০ ১২:০৯:৪৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনায় প্রাণহানি প্রায় সোয়া ১৩ লাখ

ফাইল ছবি

গত ২৪ ঘণ্টায় সারা পৃথিবীতে আরো ৬ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়েছে নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)। একই সময়ে নতুন করে প্রায় ৫ লাখ মানুষের শরীরে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে এই বৈশ্বিক মহামারীতে মৃতের সংখ্যা ১৩ লাখ ২৪ হাজার ছাড়াল। সরকারি হিসেবে, মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ কোটি ৪৮ লাখ ছাড়িয়েছে।

পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার’র তথ্য মতে, আজ ১৬ নভেম্বর, সোমবার সকাল পৌনে ৯টা পর্যন্ত সারা পৃথিবীতে করোনায় আক্রান্ত বেড়ে ৫ কোটি ৪৮ লাখ ১০ হাজার ৩১৬ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের মধ্যে ১৩ লাখ ২৪ হাজার ৩২০ জন ইতোমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন। বিপরীতে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ কোটি ৮১ লাখ ৩৬ হাজার ৮৬ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছেন ১ কোটি ৫৩ লাখ ৪৯ হাজার ৯১০ জন করোনারোগী, যাদের মধ্যে ৯৮ হাজার ৮০৯ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত পৃথিবীর সর্বোচ্চ ১ কোটি ১৩ লাখ ৬৬ হাজার ৩৭৯ জন মানুষের শরীরে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। ভারতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮৮ লাখ ৪৫ হাজার ৬১৭ জনের শরীরে ভাইরাসটির উপস্থিতি ধরা পড়েছে। ব্রাজিলে তৃতীয় সর্বোচ্চ ৫৮ লাখ ৬৩ হাজার ৯৩ জনের শরীরে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া ফ্রান্সে চতুর্থ সর্বোচ্চ ১৯ লাখ ৮১ হাজার ৮২৭ জন ও রাশিয়ায় পঞ্চম সর্বোচ্চ ১৯ লাখ ২৫ হাজার ৮২৫ জনের কোভিড-১৯ ধরা পড়েছে।

শীর্ষ দশে থাকা অন্য দেশগুলো হলো—স্পেন (১৪ লাখ ৯২ হাজার ৬০৮ জন), যুক্তরাজ্য (১৩ লাখ ৬৯ হাজার ৩১৮ জন), আর্জেন্টিনা (১৩ লাখ ১০ হাজার ৪৯১ জন), কলম্বিয়া (১১ লাখ ৯৮ হাজার ৭৪৬ জন) ও ইতালি (১১ লাখ ৭৮ হাজার ৫২৯ জন)।

কোভিড-১৯ মহামারীতে এখন পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সর্বোচ্চসংখ্যক ২ লাখ ৫১ হাজার ৮৩২ জন মানুষ মারা গেছেন। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ব্রাজিল। সেখানে মোট প্রাণহানি বেড়ে ১ লাখ ৬৫ হাজার ৮১১ জনে দাঁড়িয়েছে। ভারতে তৃতীয় সর্বোচ্চ ১ লাখ ৩০ হাজার ১০৯ জনে প্রাণ কেড়েছে ভাইরাসটি। এছাড়া মেক্সিকোতে চতুর্থ সর্বোচ্চ ৯৮ হাজার ৫৪২ জন ও যুক্তরাজ্যে পঞ্চম সর্বোচ্চ ৫১ হাজার ৯৩৪ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা।

এ হিসেবে শীর্ষ দশে রয়েছে—ইতালি (মৃত্যু ৪৫ হাজার ২২৯ জন), ফ্রান্স (মৃত্যু ৪৪ হাজার ৫৪৮ জন), ইরান (মৃত্যু ৪১ হাজার ৪৯৩ জন), স্পেন (মৃত্যু ৪০ হাজার ৭৬৯ জন) ও পেরু (মৃত্যু ৩৫ হাজার ২৩১ জন)।

এছাড়া আর্জেন্টিনায় ৩৫ হাজার ৪৩৬ জন (১১তম), কলম্বিয়ায় ৩৪ হাজার ৩১ জন (১২তম), রাশিয়ায় ৩৩ হাজার ১৮৬ জন (১৩তম), দক্ষিণ আফ্রিকায় ২০ হাজার ২৪১ জন (১৪তম), ইন্দোনেশিয়ায় ১৫ হাজার ২১১ জন (১৫তম), চিলিতে ১৪ হাজার ৮১৯ জন (১৬তম), বেলজিয়ামে ১৪ হাজার ৩০৩ জন (১৭তম), ইকুয়েডরে ১৩ হাজার ৮ জন (১৮তম), জার্মানিতে ১২ হাজার ৬৯২ জন (১৯তম), ইরাকে ১১ হাজার ৬৭০ জন (২০তম), তুরস্কে ১১ হাজার ৫০৭ জন (২১তম), কানাডায় ১০ হাজার ৯৫৩ জন (২২তম), রোমানিয়ায় ৮ হাজার ৯২৬ জন (২৩তম), বলিভিয়ায় ৮ হাজার ৮৪৯ জন (২৫তম), নেদারল্যান্ডসে ৮ হাজার ৪৮৬ জন (২৪তম), ফিলিপাইনে ৭ হাজার ৮৩২ জন (২৬তম), পাকিস্তানে ৭ হাজার ১৪১ জন (২৭তম), মিসরে ৬ হাজার ৪৫৩ জন (২৮তম), বাংলাদেশে ৬ হাজার ১৯৪ জন (২৯তম) ও সুইডেনে ৬ হাজার ১৬৪ জন (৩০তম) করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0812 seconds.