evaly
  • বিদেশ ডেস্ক
  • ১৭ নভেম্বর ২০২০ ০৯:২২:৩০
  • ১৭ নভেম্বর ২০২০ ১২:২০:৪৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনা : ২৪ ঘণ্টায় আরো ৮ হাজার প্রাণহানি

ছবি : সংগৃহীত

নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সারা পৃথিবীতে আরো প্রায় ৮ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন করে সোয়া ৫ লাখের বেশি মানুষের শরীরে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে এই বৈশ্বিক মহামারীতে মৃতের সংখ্যা ১৩ লাখ ৩২ হাজার ছাড়িয়েছে। সরকারি হিসেবে, মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ কোটি সাড়ে ৫৩ লাখের কাছাকাছি।

পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার’র তথ্য মতে, আজ ১৭ নভেম্বর, মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৯টা পর্যন্ত সারা পৃথিবীতে করোনায় আক্রান্ত বেড়ে ৫ কোটি ৫৩ লাখ ৪৫ হাজার ২৮৪ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের মধ্যে ১৩ লাখ ৩২ হাজার ৮৪ জন ইতোমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন। বিপরীতে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ কোটি ৮৪ লাখ ৮৯ হাজার ৯৬৭ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছেন ১ কোটি ৫৫ লাখ ২৩ হাজার ২৩৩ জন করোনারোগী, যাদের মধ্যে ৯৯ হাজার ৭৪৪ জনের অবস্থা গুরুতর।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত পৃথিবীর সর্বোচ্চ ১ কোটি ১৫ লাখ ৩৮ হাজার ৫৭ জন মানুষের শরীরে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। ভারতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮৮ লাখ ৭৪ হাজার ১৭২ জনের শরীরে ভাইরাসটির উপস্থিতি ধরা পড়েছে। ব্রাজিলে তৃতীয় সর্বোচ্চ ৫৮ লাখ ৭৬ হাজার ৭৪০ জনের শরীরে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া ফ্রান্সে চতুর্থ সর্বোচ্চ ১৯ লাখ ৯১ হাজার ২৩৩ জন ও রাশিয়ায় পঞ্চম সর্বোচ্চ ১৯ লাখ ৪৮ হাজার ৬০৩ জনের কোভিড-১৯ ধরা পড়েছে।

শীর্ষ দশে থাকা অন্য দেশগুলো হলো—স্পেন (১৫ লাখ ২১ হাজার ৮৯৯ জন), যুক্তরাজ্য (১৩ লাখ ৯০ হাজার ৬৮১ জন), আর্জেন্টিনা (১৩ লাখ ১৮ হাজার ৩৮৪ জন), ইতালি (১২ লাখ ৫ হাজার ৮৮১ জন) ও কলম্বিয়া (১২ লাখ ৫ হাজার ২১৭ জন)।

কোভিড-১৯ মহামারীতে এখন পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সর্বোচ্চসংখ্যক ২ লাখ ৫২ হাজার ৬৫১ জন মানুষ মারা গেছেন। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ব্রাজিল। সেখানে মোট প্রাণহানি বেড়ে ১ লাখ ৬৬ হাজার ৬৭ জনে দাঁড়িয়েছে। ভারতে তৃতীয় সর্বোচ্চ ১ লাখ ৩০ হাজার ৫৫৯ জনে প্রাণ কেড়েছে ভাইরাসটি। এছাড়া মেক্সিকোতে চতুর্থ সর্বোচ্চ ৯৮ হাজার ৮৬১ জন ও যুক্তরাজ্যে পঞ্চম সর্বোচ্চ ৫২ হাজার ১৪৭ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা।

এ হিসেবে শীর্ষ দশে রয়েছে—ইতালি (মৃত্যু ৪৫ হাজার ৭৩৩ জন), ফ্রান্স (মৃত্যু ৪৫ হাজার ৫৪ জন), ইরান (মৃত্যু ৪১ হাজার ৯৭৯ জন), স্পেন (মৃত্যু ৪১ হাজার ২৫৩ জন) ও আর্জেন্টিনা (৩৫ হাজার ৭২৭ জন)

এছাড়া পেরুতে ৩৫ হাজার ২৭১ জন (১১তম), কলম্বিয়ায় ৩৪ হাজার ২২৩ জন (১২তম), রাশিয়ায় ৩৩ হাজার ৪৮৯ জন (১৩তম), দক্ষিণ আফ্রিকায় ২০ হাজার ৩১৪ জন (১৪তম), ইন্দোনেশিয়ায় ১৫ হাজার ২৯৬ জন (১৫তম), চিলিতে ১৪ হাজার ৮৬৩ জন (১৬তম), বেলজিয়ামে ১৪ হাজার ৪২১ জন (১৭তম), ইকুয়েডরে ১৩ হাজার ১৬ জন (১৮তম), জার্মানিতে ১২ হাজার ৮৯১ জন (১৯তম), ইরাকে ১১ হাজার ৭১২ জন (২০তম), তুরস্কে ১১ হাজার ৬০১ জন (২১তম), কানাডায় ১১ হাজার ২৭ জন (২২তম), রোমানিয়ায় ৯ হাজার ৭৫ জন (২৩তম), বলিভিয়ায় ৮ হাজার ৮৫৯ জন (২৫তম), নেদারল্যান্ডসে ৮ হাজার ৫৩০ জন (২৪তম), ফিলিপাইনে ৭ হাজার ৮৩৯ জন (২৬তম), পাকিস্তানে ৭ হাজার ১৬০ জন (২৭তম), মিসরে ৬ হাজার ৪৬৫ জন (২৮তম), বাংলাদেশে ৬ হাজার ২১৫ জন (২৯তম) ও সুইডেনে ৬ হাজার ১৬৪ জন (৩০তম) করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0722 seconds.