evaly
  • বিদেশ ডেস্ক
  • ১৮ নভেম্বর ২০২০ ০৮:২৫:০০
  • ১৮ নভেম্বর ২০২০ ১৩:১১:০৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনায় একদিনে আরো ১১ সহস্রাধিক মৃত্যু

ফাইল ছবি

নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় সারা পৃথিবীতে আরো ১১ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। একই সময়ে নতুন করে প্রায় ৬ লাখ মানুষের শরীরে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে এই বৈশ্বিক মহামারীতে মৃতের সংখ্যা ১৩ লাখ ৪৩ হাজার ছাড়াল। সরকারি হিসেবে, মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ কোটি সাড়ে ৫৯ লাখের কাছাকাছি।

পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার’র তথ্য মতে, আজ ১৮ নভেম্বর, বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত সারা পৃথিবীতে করোনায় আক্রান্ত বেড়ে ৫ কোটি ৫৯ লাখ ৩৬ হাজার ৯০১ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের মধ্যে ১৩ লাখ ৪৩ হাজার ১১৬ জন ইতোমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন। বিপরীতে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ কোটি ৮৯ লাখ ৫৮ হাজার ৮০২ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছেন ১ কোটি ৫৬ লাখ ৩৪ হাজার ৯৮৩ জন করোনারোগী, যাদের মধ্যে ১ লাখ ৬৮৭ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত পৃথিবীর সর্বোচ্চ ১ কোটি ১৬ লাখ ৯৫ হাজার ৭১১ জন মানুষের শরীরে করোনার সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। ভারতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮৯ লাখ ১২ হাজার ৭০৪ জনের শরীরে ভাইরাসটির উপস্থিতি ধরা পড়েছে। ব্রাজিলে তৃতীয় সর্বোচ্চ ৫৯ লাখ ১১ হাজার ৭৫৮ জনের শরীরে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া ফ্রান্সে চতুর্থ সর্বোচ্চ ২০ লাখ ৩৬ হাজার ৭৫৫ জন ও রাশিয়ায় পঞ্চম সর্বোচ্চ ১৯ লাখ ৭১ হাজার ১৩ জনের কোভিড-১৯ ধরা পড়েছে।

শীর্ষ দশে থাকা অন্য দেশগুলো হলো—স্পেন (১৫ লাখ ৩৫ হাজার ৫৮ জন), যুক্তরাজ্য (১৪ লাখ ১০ হাজার ৭৩২ জন), আর্জেন্টিনা (১৩ লাখ ২৯ হাজার ৫ জন), ইতালি (১২ লাখ ৩৮ হাজার ৭২ জন) ও কলম্বিয়া (১২ লাখ ১১ হাজার ১২৮ জন)।

কোভিড-১৯ মহামারীতে এখন পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সর্বোচ্চসংখ্যক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে প্রাণহানি বেড়ে ২ লাখ ৫৪ হাজার ২৫৫ জনে দাঁড়িয়েছে। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ব্রাজিল। সেখানে মোট ১ লাখ ৬৬ হাজার ৭৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। ভারতে তৃতীয় সর্বোচ্চ ১ লাখ ৩১ হাজার ৩১ জনের প্রাণ কেড়েছে ভাইরাসটি। এছাড়া মেক্সিকোতে চতুর্থ সর্বোচ্চ ৯৯ হাজার ২৬ জন ও যুক্তরাজ্যে পঞ্চম সর্বোচ্চ ৫২ হাজার ৭৪৫ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা।

এ হিসেবে শীর্ষ দশে রয়েছে—ইতালি (মৃত্যু ৪৬ হাজার ৪৬৪ জন), ফ্রান্স (মৃত্যু ৪৬ হাজার ২৭৩ জন), ইরান (মৃত্যু ৪২ হাজার ৪৬১ জন), স্পেন (মৃত্যু ৪১ হাজার ৬৮৮ জন) ও আর্জেন্টিনা (৩৬ হাজার ১০৬ জন)।

এছাড়া পেরুতে ৩৫ হাজার ৩১৭ জন (১১তম), কলম্বিয়ায় ৩৪ হাজার ৩৮১ জন (১২তম), রাশিয়ায় ৩৩ হাজার ৯৩১ জন (১৩তম), দক্ষিণ আফ্রিকায় ২০ হাজার ৪৩২ জন (১৪তম), ইন্দোনেশিয়ায় ১৫ হাজার ৩৯৩ জন (১৫তম), চিলিতে ১৪ হাজার ৮৮৩ জন (১৬তম), বেলজিয়ামে ১৪ হাজার ৬১৬ জন (১৭তম), জার্মানিতে ১৩ হাজার ২৪৮ জন (১৮তম), ইকুয়েডরে ১৩ হাজার ২৫ জন (১৯তম), ইরাকে ১১ হাজার ৭৫২ জন (২০তম), তুরস্কে ১১ হাজার ৭০৪ জন (২১তম), কানাডায় ১১ হাজার ৮৬ জন (২২তম), রোমানিয়ায় ৯ হাজার ২৬১ জন (২৩তম), বলিভিয়ায় ৮ হাজার ৮৬৬ জন (২৫তম), নেদারল্যান্ডসে ৮ হাজার ৬১৬ জন (২৪তম), ফিলিপাইনে ৭ হাজার ৮৬২ জন (২৬তম), পাকিস্তানে ৭ হাজার ১৯৩ জন (২৭তম), মিসরে ৬ হাজার ৪৮১ জন (২৮তম), বাংলাদেশে ৬ হাজার ২৫৪ জন (২৯তম) ও সুইডেনে ৬ হাজার ২২৫ জন (৩০তম) করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.1104 seconds.