evaly
  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ২১ নভেম্বর ২০২০ ২২:৩৯:২১
  • ২১ নভেম্বর ২০২০ ২২:৩৯:২১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

তরুণের লাশের পাশে তরুণীর অত্মহত্যার চেষ্টা

ছবি : প্রতিকী

সিলেট নগরীর একটি বাসা থেকে এক তরুণের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মৃত ওই তরুণের নাম মিফতাহুর রহমান। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ১৬ বছর বয়সী একটি মেয়েকেও উদ্ধার করা হয়। ২১ নভেম্বর, শনিবার নগরীর পাঠানটুলার নিকুঞ্জ আবাসিক এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

মৃত মিফতাহুর রহমান সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার জগদল ইউনিয়নের কদমতলি গ্রামের মতিউর রহমানের ছেলে। সিলেটের কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সেলিম মিঞা এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

জানা গেছে, ওই বাসার একটি কক্ষের মেঝেতে তরুণের লাশটি পড়ে ছিলো। আর তার পাশেই ওই মেয়েটিও ছিলো। তার বাঁ হাতে ব্লেডের ক্ষত ছিলো। এ ঘটনায় শনিবার বিকেলে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে তরুণের পরিবার মামলা করলে ওই মেয়েকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে সেফ হোমে পাঠানো হয়।

পুলিশ জানায়, মিফতাহুরের সঙ্গে মেয়েটির প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। গতকাল শুক্রবার রাতে মেয়েটি তরুণের বাসায় ওঠে। রাতে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হলে সকালে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তরুণটি। মেয়েটিও তখন তরুণের লাশের পাশে বসে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। তার হাতে ব্লেডের ক্ষত পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে মিফতাহুরের চাচা মুহিবুর রহমান জানান, তার ভাতিজা গতকাল শুক্রবার বাসায় একা ছিলেন। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে খবর পেয়ে বাসায় যান তিনি। গিয়ে দেখেন, একটি কক্ষের মেঝেতে মিফতাহুর রহমানের নিথর দেহ পড়ে আছে। তখন পাশের কক্ষে ওই মেয়েটিও ছিলো। মেয়েটি তাকে জানায়, রাতে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হলে পৃথক দুটি কক্ষে তারা ঘুমান। সকালে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় মিফতাহুরকে দেখে মেয়েটি তাকে মেঝেতে নামান। পরে মেয়েটি নিজেও ব্লেড চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

এ বিষয়ে ওসি মোহাম্মদ সেলিম মিঞা জানান, এ ঘটনায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মিফতাহুরের বাবা বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেছেন। পুলিশকে দেয়া মেয়েটির বক্তব্য যাচাই-বাছাই করা হবে। মামলা হওয়ায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে। আদালতের নির্দেশে মেয়েটিকে সেফ হোমে পাঠিয়ে তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0638 seconds.