• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৩ নভেম্বর ২০২০ ১৭:৫৯:৫৩
  • ২৩ নভেম্বর ২০২০ ১৭:৫৯:৫৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার করে আলোচনায় মুসলিম দম্পতি

উগার শাহিন ও উজলেম তুরেসি। ছবি : সংগৃহীত

বর্তমানে সারাবিশ্বের সবচেয়ে আলোচিত নাম উগার শাহিন ও উজলেম তুরেসি। সবার আগে করোনার কার্যকর ভ্যাকসিন আবিষ্কার করে আলোচনায় আসেন তুর্কি বংশোদ্ভূত এই মুসলিম দম্পতি। করোনার ভ্যাকসিন আবিস্কার করে রাতারাতি বিশ্বখ্যাত হয়ে উঠেছেন তারা।

জানা গেছে, এই দম্পতি ২০০১ সালে জার্মানিতে গ্যানিমেড ফার্মাসিউটিক্যালস গড়ে তোলেন। পরে ২০০৮ সালে ক্যানসারের চিকিৎসার জন্য বায়োএনটেক প্রতিষ্ঠা করেন তারা। ইউরোপের বাইরে প্রতিষ্ঠানটির তেমন পরিচিতি না থাকলেও ভ্যাকসিন আবিস্কারের খবরে রাতারাতি বিশ্বখ্যাতি পায় প্রতিষ্ঠানটি।

বায়োএনটেক’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার দায়িত্বে উগার শাহিন। তিনি বলেন, এটি সম্পূর্ণ নতুন ভাইরাস। তাই অন্ধের মতোই ভ্যাকসিন তৈরির কাজ শুরু করি। প্রথম দিকে চ্যালেঞ্জ থাকলেও ১০ মাসের মধ্যে সাফল্য ধরা দিয়েছে। খুব দ্রুতগতিতে আশানুরুপ পাওয়া গেছে।

করোনা মহামারীর প্রথম দিকে জানুয়ারিতেই ভ্যাকসিনের গবেষণা শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি। বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন যৌথভাবে উৎপাদনের জন্য চুক্তি করেছে বিশ্ববিখ্যাত ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি ফাইজার। এই ভ্যাকসিনটি ৯৫ ভাগ কার্যকর বলে দাবি করা হয়েছে।

বায়োএনটেকের প্রতিষ্ঠাতা উগার শাহিনের ব্যক্তিগত জীবন খুবই সাদামাটা। ব্যবহার করেন না কোন গাড়ি, থাকেন সাধারণ ফ্লাটে। শুধু কাজের পেছনে ছুটতে পছন্দ করেন। তার সাফল্যের সারথি স্ত্রী উজলেম তুরেসি। এই বিজ্ঞানী দম্পতি এতটাই কাজ পাগল যে বিয়ের দিনও আনুষ্ঠানিকতা শেষ করেই হাজির হয়েছেন ল্যাবে। তাদের দিনরাত গবেষণার সবচে বড় সাফল্য করোনার ভ্যাকসিন।

ছোটবেলায় আভিবাসী হিসেবে ইস্কেন্দেরুন থেকে পরিবারের সঙ্গে জার্মানিতে পাড়ি জামান ৫৫ বছর বয়সী উগার শাহিন। আর ৫৩ বছর বয়সী স্ত্রী উজলেম তুরেসির জন্ম জার্মানিতেই। ১৯৯৩ সালে পিএইচডি গবেষণার সুবাদে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের হাসাপাতালে দুজনের পরিচয়। এরপর ২০০২ সালে বিয়ে করেন তারা।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1103 seconds.