• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৩ ডিসেম্বর ২০২০ ১৩:৫১:৪৮
  • ০৩ ডিসেম্বর ২০২০ ১৩:৫১:৪৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

‘মধুদা’র ভাস্কর্যের কান ভেঙেছে কারা?

ছবি : সংগৃহীত

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপন নিয়ে মৌলবাদী গোষ্ঠীর হুমকি-ধামকির মধ্যেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) মধুর ক্যান্টিনের সামনে স্থাপিত মধুসূদন দে স্মৃতি ভাস্কর্যের একটি কান ভেঙে দেয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। গতকাল ২ ডিসেম্বর, বুধবার রাতের কোনো সময় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা এ ঘটনা ঘটায় বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আজ ৩ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার সকালে মধুর ক্যান্টিনের কর্মীরা বিষয়টি দেখতে পেয়ে প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানীকে জানান। পরে প্রক্টরিয়াল টিমের সদস্যরা এসে ভাস্কর্যটির কান প্রতিস্থাপন করে। তবে তারা জানিয়েছেন, মধুর ক্যান্টিনের কর্মচারীরাই নতুন কানটি প্রতিস্থাপন করেছেন।

ঢাবি প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী এ বিষয়ে একটি সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘এ ঘটনার পর মধুর ক্যান্টিনের কর্মচারীরাই ভাস্কর্যটির কান প্রতিস্থাপন করেছেন।’

ভাস্কর্যে আঘাতটি খেয়ালের বশে হয়েছে, নাকি উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে, তা এখনো জানা যায়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘কারা, কী উদ্দেশ্যে কাজটি করেছে, সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের তা খুঁজে বের করতে বলা হয়েছে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের কাছে ‘মধুদা‘ হিসেবে পরিচিত মধুসূদন দে ঢাবির ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের সামনে অবস্থিত ওই ক্যান্টিনটির প্রতিষ্ঠাতা। নানা সামাজিক-রাজনৈতিক আন্দোলনে সোচ্চার ছিলেন তিনি। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালরাতে তাকে জগন্নাথ হল থেকে তুলে নিয়ে হত্যা করে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর সদস্যরা। পরবর্তীতে তার স্মৃতিতেই সেই ক্যান্টিনটির নামকরণ করা হয়।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1067 seconds.