• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ০৫ ডিসেম্বর ২০২০ ০৮:৫৫:৪৩
  • ০৫ ডিসেম্বর ২০২০ ০৮:৫৬:৫৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

কাতারের সামনে উড়ে গেলো বাংলাদেশ

ছবি : সংগৃহীত

ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ১২৫ ধাপ এগিয়ে থাকা এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন কাতারের বিপক্ষে হারটা অনুমিতই ছিল বাংলাদেশের। তবে আশা ছিল কিছুটা লড়াইয়ের। যার ছিটেফোঁটাও দেখা গেলো না ম্যাচে। স্বাগতিকদের কাছে ৫-০ গোলের বড় পরাজয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে জেমি ডে’র শিষ্যরা।

দোহার দুহাইল স্পোর্টস ক্লাবের মাঠে গতকাল ৪ ডিসেম্বর, শুক্রবার রাত ১০টায় শুরু হওয়া ২০২২ বিশ্বকাপ ও এএফসি এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাই পর্বের ম্যাচে পাত্তাই পায়নি বাংলাদেশ। কাতারের হয়ে ম্যাচে দুটি করে গোল করেন ফরোয়ার্ড আকরাম আফিফ ও আলমোয়েজ আলী।

ম্যাচের পঞ্চম মিনিটেই মিডফিল্ডার আব্দুলআজিজ হাতেমের গোলে এগিয়ে যায় কাতার। প্রথমার্ধের ৩৩তম ‍মিনিটে নিজের প্রথম ও ম্যাচের দ্বিতীয় গোলটি করেন আকরাম আফিফ।

২-০ গোলে পিছিয়ে মধ্যবিরতিতে যায় দুই দল। দ্বিতীয়ার্ধের সত্তর মিনিটের মাথায় ডিবক্সের ভেতর বাজেভাবে ট্যাকলের শিকার হন এক কাতারি খেলোয়াড়। যার খেসারত বাংলাদেশকে দিতে হয় পেনাল্টির গোল খেয়ে। পেনাল্টি থেকে ৭২ মিনিটে নিজের প্রথম ও ম্যাচের তৃতীয় গোল করেন আলমোয়েজ আলী।

খানিক বাদেই ৭৮তম মিনিটে নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করেন আলী। পরবর্তীতে অতিরিক্ত সময়ে নিজের দ্বিতীয় গোলটি আদায় করে নেন আকরাম আফিফ।

শেষ পর্যন্ত ৫-০ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্প্যানিশ কোচ ফেলিক্স স্যানচেজের শিষ্যরা। তারা এদিন গোলপোস্টে মোট শট নেন ৩২টি। বিপরীতে ব্রিটিশ কোচ জেমি ডে’র শিষ্যরা নেন মাত্র ১টি শট। বল দখল থেকে নিয়ন্ত্রণ পর্যন্ত সব কিছুতেই এদিন ব্যর্থ ছিলেন সাদ উদ্দিন-মাহবুবুর রহমান সুফিলরা। শুধুমাত্র গোলপোস্টের সামনে কিছুটা প্রতিরোধ গড়েছেন নিয়মিত গোলরক্ষক আশরাফুল রানার বদলে খেলতে নামা তরুণ আনিসুর রহমান জিকো। নিজের দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক ম্যাচেই এই গোলরক্ষককে বড় পরীক্ষার মুখোমুখি হতে হয়। এবং নিজের দায়িত্ব পালনে সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছেন তিনি। না হলে স্কোরলাইন আরো বড় হতে পারতো।

বাছাইপর্বের ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে গত অক্টোবরে ঢাকায় মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ-কাতার। সেই ম্যাচে ২-০ গোলে হারলেও লড়াই করেছিল বাংলাদেশ দল। গতকালকের ম্যাচে যার ছিটেফোঁটাও দেখা গেলো না।

এই জয়ের পর ছয় ম্যাচে ৫ জয় থেকে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে রয়েছে। অপরদিকে পাঁচ ম্যাচে ৪ জয় থেকে ১১ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ওমান। পাঁচ ম্যাচ থেকে ৪ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় আফগানিস্তান ও সমান ম্যাচে তিন পয়েন্ট নিয়ে ভারত রয়েছে চতুর্থ অবস্থানে। অন্যদিকে পাঁচ ম্যাচে এক ড্র ও চার হারে তলানি থাকা বাংলাদেশের পয়েন্ট সাকুল্যে মাত্র এক।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0903 seconds.