• বিদেশ ডেস্ক
  • ১০ ডিসেম্বর ২০২০ ২৩:৩৪:১৪
  • ১০ ডিসেম্বর ২০২০ ২৩:৩৪:১৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

কৃষক আন্দোলনকে ভারত-পাকিস্তান ইস্যু ভেবেছিলেন বরিস

বরিস জনসন। ফাইল ছবি

ভারতের চলমান কৃষক আন্দোলন নিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও কথা হচ্ছে। ইতোমধ্যে জাতিসংঘ ও কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্ররুডো এই আন্দোলনে সমর্থন জানিয়েছেন। তবে এই আন্দোলন নিয়ে মন্তব্য করে সমালোচিত হয়েছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

এই কৃষক আন্দোলনকে ভারত-পাকিস্তান দ্বন্দ্বের ইস্যু ভেবে ছিলেন বরিস। আর তাতেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাকে নিয়ে প্রচুর সমালোচনা চলছে। এমন খবর প্রকাশ করেছে আলজাজিরা।

যুক্তরাজ্যের সংসদ সদস্য তানমানজিত সিং ধেসি সংসদে বরিস জনসনকে প্রশ্ন করেন- ভারতে কৃষকদের ওপর যেভাবে জল কামান, টিয়ার গ্যাস প্রয়োগ করে আন্দোলন কঠোরভাবে দমনের চেষ্টা চলছে, এ বিষয়ে যুক্তরাজ্য সরকারের অবস্থান কী।

এই প্রশ্নের জবাবে বরিস বলেন, ভারত পাকিস্তানের মধ্যে কী হচ্ছে, তা নিয়ে আমাদের গভীর উদ্বেগ রয়েছে। তবে সমাধানে দুই দেশের সরকারকেই আগে এগিয়ে আসতে হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর এমন মন্তব্যকে অজ্ঞতাপূর্ণ ও হতাশাজনক বলে টুইট করেন তানমানজিত সিং।

ব্রিটেনের সংসদ সদস্য আফজাল খান বলেন, এটি বরিস জনসনের আরেকটি হতাশাজনক আচরণ। প্রধানমন্ত্রী ভারত পাকিস্তান সম্পর্কে তার মুখস্ত করা অপ্রাসঙ্গিক উত্তর দিয়েছেন। এই ইস্যুর সঙ্গে পাকিস্তানের কোনো সম্পর্ক নেই। অবিশ্বাস্য।

দেশটির আরেক সংসদ সদস্য জাহরা সুলতানা বলেন, একজন প্রধানমন্ত্রী কাশ্মীর আর পাঞ্জাবের পার্থক্য জানবেন এটি কি খুব বেশি কিছু চাওয়া?

প্রসঙ্গত, ভারতে নতুন তিনটি কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে দেশটির হাজার হাজার কৃষক প্রতিবাদে নেমেছেন। তারা কার্যত রাজধানী দিল্লিকে অবরুদ্ধ করে রেখেন। কৃষকরা অভিযোগ করেন, এই আইনের ফলে তাদের জীবন-জীবিকা হুমকিতে পড়বে। আর বড় করপোরেশনগুলোই শুধু লাভবান হবে।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1044 seconds.