• বিদেশ ডেস্ক
  • ১১ ডিসেম্বর ২০২০ ১৭:৪১:২১
  • ১১ ডিসেম্বর ২০২০ ১৭:৪১:২১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ইসরায়েলের সঙ্গে মরক্কোর সম্পর্ক স্থাপন

ছবি : সংগৃহীত

চতুর্থ দেশ হিসেবে ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠায় রাজি হয়েছে মরক্কো। ১০ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার এক টুইট বার্তায় এই তথ্য জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সম্প্রতি ইসরায়েলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও সুদান শান্তিচুক্তি করেছে।

এটিকে মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের প্রভাব মোকাবেলায় ইসরায়েলের পক্ষে আঞ্চলিক সমর্থন বাড়াতে ট্রাম্প প্রশাসনের শেষ মুহূর্তের কূটনৈতিক সফলতা হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

ওই টুইট বার্তায় ট্রাম্প লিখেছেন, আজ আরেকটি ঐতিহাসিক সফলতা অর্জিত হয়েছে। ইসরায়েল ও মরক্কো পরিপূর্ণ কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে রাজি হয়েছে। মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি স্থাপনে এটি একটি বড় সফলতা।

এ বিষয়ে হোয়াইট হাউস জানায়, ইসরায়েলের সঙ্গে মরক্কো কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন এবং আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা এগিয়ে নিতে অর্থনেতিক ও সাংস্কৃতিক সহযোগিতা সম্প্রসারিত করবে। ট্রাম্প ও মরক্কোর বাদশাহ ষষ্ঠ মোহাম্মদ এ বিষয়ে একমত হয়েছেন।

এদিকে আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, পশ্চিম সাহারার ওপর মরক্কোর আধিপত্যের স্বীকৃতি দেবে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই প্রস্তাবে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরিতে রাজি হয়ে যান মরক্কোর বাদশাহ ৬ষ্ঠ মোহাম্মদ।

পশ্চিম সাহারার স্বাধীনতাকামীদের সঙ্গে কয়েক দশক ধরে বিরোধ চলছে মরক্কোর। মরোক্কান প্রভাব থেকে বেরিয়ে সেখানে আলাদা রাষ্ট্র গড়ার চেষ্টা করছে আলজেরিয়া সমর্থিত পলিসিও ফ্রন্ট।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1158 seconds.