• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৯ ডিসেম্বর ২০২০ ১১:৩৫:৪৯
  • ১৯ ডিসেম্বর ২০২০ ১১:৩৫:৪৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ইতালিতে ফের দুই দফায় পুরো লকডাউন ঘোষণা

ছবি : সংগৃহীত

ক্রিসমাস ও নববর্ষের আসন্ন ছুটিতে করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে নতুন করে স্বল্প সময়ের জন্য লকডাউন ঘোষণা করেছে ইতালি। গতকাল ১৮ ডিসেম্বর, শুক্রবার দেশটির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ্পে কন্তে এ ঘোষণা দেন। তার সরকারি বাসভবন পালাজ্জো কিজি থেকে আনলাইনের মাধ্যমে এ সংক্রান্ত নতুন অধ্যাদেশ ঘোষণা করেন তিনি।

কন্তে বলেন, ‘মহামারী করোনার দ্বিতীয় প্রকোপ ঠেকাতে ইতালি সরকার তাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। আসন্ন ধর্মীয় উৎসব বড়দিন ও নতুন বছর বরণের আয়োজনে যেন নতুন করে করোনা সংক্রমণ না হয় সেজন্য আমরা আবারো সম্পূর্ণ ইতালিকে লালজোনের আওতাভুক্ত করে পুরো ইতালিকে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

দেশবাসীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আপনারা ভুলে যাবেন না এটা আমাদের ত্যাগের সময়। আমরা এখন ত্যাগ করবো যাতে পরবর্তী সময়ে আমরা সবাই সুস্থ থেকে আমাদের পরিবারের সাথে মিলিত হতে পারি।’

সরকারের জারি করা নতুন এ অধ্যাদেশের নিয়মানুযায়ী চলতি মাসের ২৪ তারিখ থেকে ২৭ তারিখ পর্যন্ত পুরো ইতালিই সম্পূর্ণ লকডাউন থাকবে। এ সময় কর্মক্ষেত্র, হাসপাতাল ও জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বের হতে পারবে না। সেইসাথে পানশালা-রেস্তোরাঁসহ সকল ধরনের প্রতিষ্ঠান পুরোপুরি বন্ধ থাকবে। তবে সুপারমার্কেট, মুদিদোকান ও ফার্মেসিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দোকান খোলা থাকবে।

এরপর ২৮ ডিসেম্বর থেকে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত লকডাউন একটু শিথিল করে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত পানশালা ও রেস্তোরাঁ খোলা রাখার অনুমতি দেয়া হয়। তবে ৩১ ডিসেম্বর থেকে পরবর্তী ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত ফের পুরোপুরি লকডাউন কার্যকর হবে।

গতকাল শুক্রবার দেশটিতে নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন প্রায় ১৮ হাজার মানুষ। একই সময়ে প্রায় সাতশ’ মানুষের প্রাণ কেড়েছে ভাইরাসটি। তবে এদিন করোনামুক্ত হয়েছেন প্রায় সোয়া ২২ হাজার মানুষ।

পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার’র তথ্য মতে, আজ ১৯ ডিসেম্বর, শনিবার বেলা সোয় ১১টা পর্যন্ত ইতালিতে মোট করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ লাখ ২১ হাজার ৭৭৮ জন, যা পৃথিবীতে অষ্টম সর্বোচ্চ। এদের মধ্যে ৬৭ হাজার ৮৯৪ জন ইতোমধ্যে মারা গেছেন, যা পঞ্চম সর্বোচ্চ। সেখানে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১২ লাখ ২৬ হাজার ৮৬ জন করোনারোগী। বর্তমানে দেশটিতে চিকিৎসাধীন আছেন ৬ লাখ ২৭ হাজার ৭৯৮ জন, যাদের মধ্যে ২ হাজার ৮১৯ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1039 seconds.