• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০১ জানুয়ারি ২০২১ ২০:০৬:২১
  • ০১ জানুয়ারি ২০২১ ২০:০৬:২১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

প্রবাসী ভাইয়ের স্ত্রীকে ‘ধর্ষণ’, অন্তঃসত্ত্বা ভাবি

ছবি : সংগৃহীত

টাঙ্গাইলের দেবরের বিরুদ্ধে বড় ভাইয়ের স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভাবি সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এখন ন্যায়বিচারের জন্য দুই শিশুসন্তান নিয়ে বিভিন্ন দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন তিনি। জেলার মির্জাপুর উপজেলার ওয়াশি ইউনিয়নের বরুটিয়া গ্রামে এমন ঘটনা ঘটেছে।

ওই নারীর স্বামী বিদেশে থাকে। এ ঘটনার টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে দেবরকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী নারী।

এ বিষয়ে ওই প্রবাসীর স্ত্রী জানান, বরুটিয়া গ্রামের ১১ বছর আগে তার বিয়ে হয়। তাদের এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে। তার স্বামী বিদেশ থাকায় তার দেবর দীর্ঘদিন ধরে নানাভাবে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। গত ২৮ জুলাই রাতে দুই সন্তান নানার বাড়িতে বেড়াতে যায়। এ সময় ঘরে একা পেয়ে তার দেবর তাকে ধর্ষণ করে।

তিনি আরো জানান, তার শাশুড়ি রাবেয়া বেগমকে এ ঘটনা জানালে ছেলে রক্ষায় পুত্রবধূকে শিশু সন্তানসহ তাড়িয়ে দেবেন- এই ভয় দেখিয়ে বিষয়টি গোপন রাখতে বলেন তার দেবর। আর ভয়ভীতি দেখিয়ে মাঝমধ্যেই ভাবিকে ধর্ষণ করেন তিনি। এক পর্যায়ে গৃহবধূ ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। বিষয়টি নিয়ে গ্রাম্য সালিশ হলেও তা মীমাংসা হয়নি। তাই উপায় না পেয়ে আদালতে মামলা করেন তিনি।

এ বিষয়ে ভাওড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আমজাদ হোসেন বলেন, এটা তাদের পারিবারিক ঘটনা ও জটিল বিষয় বিধায় তাদের আইনের আশ্রয় নিতে বলা হয়েছে।

মমালার আইনজীবী মো. সাইদুর রহমান বলেন, টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে ওই গৃহবধূ মামলা দায়ের করেছেন। ২৯৭ নম্বর মামলাটি ডিবিতে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে ডিবির উপপরিদর্শক মো. আলমগীর হোসেন জানান, গৃহবধূর দায়ের করা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের মামলাটি এখন পর্যন্ত হাতে আসেনি।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0832 seconds.