• বিনোদন ডেস্ক
  • ০৩ জানুয়ারি ২০২১ ১১:৫৬:১৩
  • ০৩ জানুয়ারি ২০২১ ১১:৫৬:১৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ভালোবাসা দিবসে কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে আসিফ-ন্যান্সিকে!

ফাইল ছবি

দেশের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আসিফ আকবরের বিরুদ্ধে আরেক জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী নাজমুন মুনীরা ন্যান্সির মামলার বিষয়টি পুরনো হয়ে গেছে। তবে নতুন করে জানা গেছে, তাদের মামলার তারিখ পড়েছে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি। যে দিনটি বিশ্বজুড়ে ‘ভালোবাসা দিবস’ হিসেবে পালন করেন তরুণ-তরুণীরা। ওইদিনই আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে আসিফ-ন্যান্সিকে।

গত ৩১ ডিসেম্বর, বৃহস্পতিবার আসিফ তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ও পেজে তার বিরুদ্ধে করা মামলার প্রসঙ্গে একটি পোস্ট শেয়ার করেন। তবে সেখানে মামলাকারীর নাম উল্লেখ করেননি তিনি।

তবে ন্যান্সিই মামলাটি করেছেন বলে জানা গেছে। এমনকি গণমাধ্যমের কাছে ন্যান্সিতা স্বীকারও করেছেন। তার অভিযোগ, ‘উনি (আসিফ) অনেকদিন ধরেই আমাকে নিয়ে অপ্রাসঙ্গিক কথা বলে আসছেন। একজন মানুষ বা নারী হিসেবে আমি এই অসম্মান নিতে পারি নাই।’

জানা যায়, গত বছর এক টিভি টক শো’তে ন্যান্সিকে ‘পাগল’ বলে উল্লেখ করেন আসিফ। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে গতবছরের জুলাই মাসে আসিফের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগ দায়ের করেন ন্যান্সি। ওই বিষয়েই গত তিরিশে ডিসেম্বর আদালতের সমন পান আসিফ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেয়া এক পোস্টে আসিফ লিখেছেন, ‘বছরের শেষ দিনে আদালতের সমন পেলাম। কোনো একজন স্বনামধন্য গায়িকা মামলা করেছেন। এখনো মামলার কপি উত্তোলন করিনি। তাই তথ্য দিতে পারছি না। এতটুকু জানি ময়মনসিংহ গিয়ে মামলা ফেস করতে হবে। হাতে কিছু সময় আছে। এদিকে কপিরাইট অফিসের জাদুতে মুগ্ধ আমি। তাদের ভুলভাল দিকনির্দেশনা এখন গলার ফাঁস হয়ে গেছে। ওখানেও অযাচিত ঝামেলায় জড়াতে হচ্ছে। এসব ঝামেলা কখনো আমি চাইনি, চাইও না। আপাতত ভুক্তভোগী তবে জয় নিশ্চিত।’

তিনি আরো লিখেছেন, ‘মামলা ভালো লাগে না। যতই লুকিয়ে বেড়াতে চাই ততই আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে ধরে অযাচিত ঝামেলাগুলো। আমার বিরুদ্ধে কোনো রকম অপরাধ প্রমাণ করার কিছু আছে তা আপাতদৃষ্টিতে দেখি না। কোর্ট-কাচারি লম্বাচওড়া প্রক্রিয়া। রসদ আছে প্রচুর, মামলা আমিও করতে পারি, কারো বিরুদ্ধে এসব প্ল্যান নিয়ে ভাবার সময়ও নাই। আমি মামলা দিলে মানুষ বলবে- এগুলো আসিফের সঙ্গে যায় না। অসহনীয় অত্যাচার সহ্য করে যাচ্ছি সহজাত অভ্যাসের বাইরে গিয়ে। এখন আমার অনেক ধৈর্য, তবে এটা দুর্বলতা নয়।’

মামলার সত্যতা স্বীকার করে ন্যান্সি বলেন, ‘মামলার বিষয়টি সত্য, তবে এটি মূলত পুরনো মামলা। এ নিয়ে আমি নতুন করে কিছু বলতে চাই না। এটি আদালতের বিষয়। আদালত যা রায় দেবে তাই মেনে নিতে হবে।’

একটি টিভি চ্যানেলে ন্যান্সির অভিযোগকে ‘ভিত্তিহীন ও ষড়যন্ত্রমূলক’ বলে দাবি করেন আসিফ। এমনকি তার দাবি, তিনি বিভিন্ন সময়ে ন্যান্সিকে মানসিক ও আর্থিকভাবে সহায়তা করেছেন।

আসিফ বলেন, ‘ন্যান্সি যখন মানসিকভাবে অসুস্থ ছিল, দুঃসময় ছিল তখন আমি তার পাশে ছিলাম। এগুলো সব সাজানো মামলা। তার সাথে একটি চক্র আছে।’

বিপরীতে ন্যান্সি আসিফের কাছ থেকে কোন সাহায্য নেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন। তার অভিযোগ, আসিফ সচেতনভাবে তাকে সমাজের কাছে হেয়-প্রতিপন্ন করছেন।  তিনি বলেন, ‘উনি (আসিফ) পাঁচ লাখ টাকার যে কথা বলেছে তা আমাকে অনেক ছোট করেছে। আমি তার কাছে থেকে কোন টাকা নেইনি। উনি বলেছে উনার কাছে টাকা দেয়ার ভাউচার আছে,তাহলে উনি সেটা দেখাক।’

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0788 seconds.