• ১৯ জানুয়ারি ২০২১ ০৯:২৮:১০
  • ১৯ জানুয়ারি ২০২১ ০৯:২৮:১০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

উলিপুরে স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ

ছবি : প্রতীকী


কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :


কুড়িগ্রামের উলিপুরে স্বামীর বিরুদ্ধে দ্বিতীয় স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। আর পিতার এই কাজে সহযোগিতা করেছেন তারই সন্তান। এ ঘটনায় সৎ পিতা ও সৎ ভাইয়ের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন নিহত নারীর প্রথম পক্ষের মেয়ে। এই নির্মম ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার যমুনা সরকারপাড়া এলাকায়।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার দূর্গাপুর ইউনিয়নের যমুনা সরকারপাড়া গ্রামের আবু বক্করের পুত্র ইউনুছ আলীর (৬০)সাথে পার্শ্ববর্তী বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের ফকির মোহাম্মদ ন্যালর গ্রামের বেগনা বেগমের (৪২) দ্বিতীয় বিয়ে হয় ২০১৮ সালে। ইউনুছ আলীর প্রথম পক্ষের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

বিয়ের পর থেকে ইউনুস আলী ও পুত্র রফিকুল ইসলাম রফিক (৩৫) বেগনা বেগমকে প্রায় সময় নির্যাতন করত।

ঘটনার দিন গত ১০ জানুয়ারি রাতে শীত নিবারণের জন্য বেগনা বেগম বাড়ির আঙ্গিনায় আগুন পোহানোর সময় সৎ পুত্র রফিক তাকে পিছন থেকে জাপটে ধরেন, আর তার স্বামী ইউনুছ আলী শরীরে আগুন লাগিয়ে দিয়ে পালিয়ে যান।

পরদিন খবর পেয়ে বেগনা বেগমের প্রথম পক্ষের মেয়ে নুরজাহান সৎ পিতার বাড়িতে এসে মাকে মুমূর্ষু অবস্থায় দেখতে পান। এ সময় তিনি স্বজনদের সহযোগিতায় মাকে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে ভর্তি করান। সেখানে বেগনা বেগমের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

সেখানেও তার শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন হলে চিকিৎসক ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিট ঢাকায় রেফার্ড করেন। ঢাকায় নেয়ার পূর্বে ১৬ জানুয়ারি রাতে বেগনা বেগম মৃতুবরণ করেন।

এ ঘটনায় নিহতের মেয়ে সৎ পিতা ও সৎ ভাইয়ের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। পুলিশ ১৭ জানুয়ারি লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন। পরে ওই দিন সন্ধ্যায় বেগনা বেগমের মরদেহ পিতার বাড়ি বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের ফকির মোহাম্মদ ন্যালর গ্রামে দাফন করা হয়।

উলিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ কবির মামলা হওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, ‘বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ঘটনাটি নিয়ে পরস্পর বিরোধী বক্তব্য রয়েছে। তদন্তে প্রকৃত ঘটনা বেরিয়ে আসবে।’

বাংলা/সিএসকে/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0856 seconds.