• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ২০ জানুয়ারি ২০২১ ১০:৪২:৩১
  • ২০ জানুয়ারি ২০২১ ১০:৪২:৩১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

রায়পুরের সড়কে দুই মাসে প্রাণ গেছে শতাধিক প্রাণীর

ছবি : বাংলা

গত দুই মাসে রায়পুরের আঞ্চলিক সড়কে প্রায় শতাধিক প্রাণী নিহত হয়েছে। এছাড়া বন্যপ্রাণীদের কারণে প্রতিনিয়েই সড়কে ঘটে চলেছে দুর্ঘটনা। মাইলের মাথা থেকে বোয়াডার পর্যন্ত খাদ্যের সন্ধানে লোকালয়ে আসার সময় আঞ্চলিক সড়ক পার হওয়ার সময় কুকুর, বিড়াল, সাপ, কচ্ছপ, বেজি, গুইসাপ, সজারু, শিয়াল, মেছো বাঘের মতো প্রাণীদের মৃত্যু ঘটছে।

স্থানীয়রা জানান, বাগানের ভেতরে খাদ্যাভাবে চরম দুর্ভোগে পড়ে খাদ্যের সন্ধানে লোকালয়ে চলে আসছে বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী। অন্য সময়েও বনের প্রাণীরা লোকালয়ে আসতো, তবে সাম্প্রতিক সময়ে তাদের আসাটা একটু বেশি।

বন্য প্রাণীরা প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে সকাল পর্যন্ত রাস্তা ফাঁকা পেলেই পার হওয়ার সময় তীব্র গতিসম্পন্ন পরিবহনের চাপায় পিষ্ট হয়ে মারা যায়। এসব ঘটনার পরও সওজ, বন বিভাগ, প্রাণী সম্পদ বিভাগের কোন কর্মকর্তাদের দেখা এখনো মেলেনি! বরঞ্চ সেই প্রাণীদের দেহাবশেষ রাস্তায় পড়ে থেকে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। বিশেষ করে জীবনের ঝুঁকিতে পড়েছেন মোটরসাইকেলের চালকরা।

এছাড়া রায়পুরের হায়দারগঞ্জ আঞ্চলিক সড়ক, চরবংশী সড়ক, চরপাতা সড়ক, মোল্লারহাট সড়ক, বেড়িবাঁধ সড়ক, মিরগঞ্জ সড়কেও হতাহতের ঘটনা নিয়মিত ঘটছে। পশুদের নিয়মিত চলাচলের এসব স্থানে কোনোরকম সতর্কতামূলক চিহ্নও বসায়নি বন বিভাগ।

পেয়ার আলী নামে এক স্বেচ্ছাসেবী বলেন, ‘সম্প্রতি সড়ক পারাপার হতে গিয়ে দ্রুতগামী ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে একটি মেছা বিড়াল ও শিয়াল জাতীয় একটি প্রাণির নিথর দেহ রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখেছেন ল্যাংড়া বাজার ও চরআবাবিল এলাকার এলাকাবাসীরা।’

রায়পুর উপজেলা বন কর্মকর্তা ও প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা বিষয়টিকে দুঃখজনক হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, ‘চালকদের হর্ন বাজিয়ে বেপরোয়া গতিতে যানবাহন চালানো বন্ধ রাখা জরুরি।’

আশেপাশে ঘনবসতিপূর্ণ বন বা বাগান থাকায় রাস্তায় যানবাহন চলাচলে চালকদের সতর্ক করার কোনো প্রক্রিয়া করা যা কিনা সংশ্লিষ্টদের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

রায়পুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, বিষয়টি সম্পর্কে তিনি অবগত নন, সবার সাথে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলা/ডব্লিউআরএম/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0787 seconds.