• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৯:৫১:০৬
  • ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৯:৫১:০৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

১৫ দিনের রিমান্ডে সু চি

ফাইল ছবি

শান্তিতে নোবেল জয়ী মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচিকে ১৫ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে দেশটির পুলিশ। তার বিরুদ্ধে আমদানি-রপ্তানি নীতির লংঘন এবং অবৈধভাবে যোগাযোগ সরঞ্জামাদি রাখার অভিযোগে মামলা করা হয়েছে।

এই বিষয়ে তদন্তের জন্য আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা বরে বলে পুলিশের বরাতে গতকাল ৩ ফেব্রুয়ারি, বুধবার জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

আমদানি-রপ্তানির আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ তোলা হয়েছে ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি)৭৫ বছর বয়সী নেত্রী অং সান সু চির বিরুদ্ধে। দেশটির রাজধানী নেইপিদোতে অবস্থিত তার বাড়ি থেকে একটি ওয়াকিটকি উদ্ধার করা হয়েছে। যা অবৈধভাবে আমদানি এবং অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা হয়েছে বলে পুলিশের অভিযোগ।

সাক্ষী এবং অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদ, আরো তথ্য প্রমাণ সংগ্রহ এবং দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সু চিকে আটক রাখার জন্য গতকাল আদালতে আবেদন জানায় কর্তৃপক্ষ।

এদিকে আলাদা একটি নথিতে দেখা যায়, দেশটির ক্ষমতাচ্যুত রাষ্ট্রপতি উইন মিন্টের বিরুদ্ধে জরুরি ব্যবস্থাপনা আইন ভঙ্গের অভিযোগে মামলা করেছে পুলিশ। কোভিড মহামারিতে সমাবেশ নিষিদ্ধের নিয়ম তিনি ভঙ্গ করার এই অভিযোগে তাকেও দু’ সপ্তাহের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি, সোমবার ভোরে এক অভিযানে সু চি, রাষ্ট্রপতি উয়িন মিন্টসহ শীর্ষ নেতাদের আটক করা হয় বলে এনএলডি’র মুখপাত্র মিও নয়েন্ট আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোকে নিশ্চিত করেছেন। এর পরপরই দেশে জরুরি অবস্থা জারির ঘোষণা সেনা-নিয়ন্ত্রিত টেলিভিশনে প্রচার করা হয়।

দেশটির প্রভাবশালী সেনাবাহিনীর সাথে অং সান সু চি’র নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) বেসামরিক সরকারের বেশ কিছুদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলছিল।

গত বছরের ৮ নভেম্বরের জাতীয় নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করে এনএলডি। তবে প্রতারণার অভিযোগ তুলে এই ফল মেনে নিতে অস্বীকার করে সেনাসমর্থিত ইউনিয়ন সলিডারিটি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি (ইউএসডিপি)। তারা নতুন নির্বাচনের দাবি জানিয়ে আসছিল।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1395 seconds.