• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৬ মার্চ ২০২১ ২৩:৪৮:৪০
  • ০৬ মার্চ ২০২১ ২৩:৪৮:৪০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ফুড ডেলিভারি স্টার্টআপ হাংরিনাকি অধিগ্রহণ করলো দারাজ

ছবি : সংগৃহীত

জনপ্রিয় ফুড ডেলিভারি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হাংরিনাকির সম্পত্তি অধিগ্রহণের মাধ্যমে নিজেদের কার্যপরিসীমা সম্প্রসারণের ধারাবাহিকতায় নতুন সূচনা করলো আলীবাবা গ্রুপের অঙ্গসংগঠন ও দেশের সর্ববৃহৎ ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম দারাজ । বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিআইসিসিতে দারাজ ও হাংরিনাকির যৌথভাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আনুষ্ঠানিকভাবে এ অধিগ্রহণের ব্যাপারে জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন দারাজ’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মোস্তাহিদল হক এবং হাংরিনাকি’র প্রধান নির্বাহী ও সহ-প্রতিষ্ঠাতা এডি আহমেদসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের অন্যান্য উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, হাংরিনাকি’র অধিকাংশ স্থাবর এবং অস্থাবর সম্পত্তি দারাজ অধিগ্রহণ করেছে। তবে এর কারণে হাংরিনাকি’র বর্তমান ব্যবসায়িক কার্যাবলীতে কোনো প্রভাব পড়বে না। হাংরিনাকি’র সকল কর্মচারী ভবিষ্যতেও যথানিয়মে কাজ করে যাবেন। সরাসরি দারাজের পরিচালনায় পৃথক ও স্বতন্ত্র ফুড প্ল্যাটফর্ম হিসেবে পরিচালিত হবে হাংরিনাকি।

অনুষ্ঠানে দারাজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মোস্তাহিদল হক বলেন, ‘আমাদের ক্রেতাদের জন্য আমরা একটি ওয়ান স্টপ সল্যুশন হতে চাই। আর সে হিসেবেই আমরা স্বাভাবিক পদক্ষেপ হিসেবেই ফুড ডেলিভারি ব্যবসায় প্রবেশ করেছি। একটি বিশ্বস্ত কাস্টমার বেজ নিয়ে হাংরিনাকি বাংলাদেশে ফুড ডেলিভারি ব্যবসায় পথিকৃৎ। আর এ কারণেরই আমরা বিশ্বাস করি, একেবারে প্রাথমিক পর্যায় থেকে আমাদের নিজেদের ফুড ডেলিভারি ব্যবসা শুরু করার চেয়ে, হাংরিনাকি অধিগ্রহণ করা শ্রেয়। অবকাঠামো, প্রযুক্তি ও মানব সম্পদে বিনিয়োগের মাধ্যমে আমরা হাংরিনাকিকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে পারবো বলে আমার বিশ্বাস।’

হাংরিনাকি’র প্রধান নির্বাহী এবং সহ-প্রতিষ্ঠাতা এডি আহমেদ বলেন, ‘এটা সবার জন্যই আনন্দদায়ক মুহূর্ত। এ অধিগ্রহণের মাধ্যমে বোঝা যায় আমাদের ই-কমার্স খাত একটি আশাব্যঞ্জক অবস্থানে রয়েছে। এ ছাড়াও দেশীয় স্টার্ট-আপ এবং উদ্যোক্তাদের জন্য এটি সুখবর বয়ে এনেছে। এমন অধিগ্রহণের দৃষ্টান্তই আমাদের বাজারে ইতিবাচক মনোভাব তৈরি করবে এবং অর্থনীতিকে গতিশীল রাখবে। দারাজের সাথে মিলে আমরা হাংরিনাকিকে আরো শক্তিশালী ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলবো।’

২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ফুড ডেলিভারি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হাংরিনাকি। দেশের পাঁচটি শহরে অসংখ্য রেস্টুরেন্ট, ক্লাউড কিচেন এবং হোম কিচেন নিয়ে এই প্রতিষ্ঠানটি হাজার হাজার গ্রাহককে প্রতিদিন পৌঁছে দিচ্ছে সুস্বাদু খাবার। ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, কক্সবাজার ও নারায়ণগঞ্জে পাঁচ লাখেরও বেশি মানুষ এখন তাদের পছন্দ মত খাবার অর্ডার করতে হাংরিনাকি ব্যবহার করে থাকেন।

অন্যদিকে, দারাজ বর্তমানে দক্ষিণ এশিয়ার শীর্ষস্থানীয় অনলাইন মার্কেটপ্লেস। দারাজ ক্রেতা ও বিক্রেতার সংযোগ ঘটানোর মাধ্যমে লক্ষাধিক বিক্রেতার ক্ষমতায়নে কাজ করছে। শতাধিক ক্যাটাগরির আওতায় কোটিরও বেশি পণ্য পাওয়া যায় দারাজে, যার চাহিদা পূরণে প্রতিমাসে প্রতিষ্ঠানটি দেশের আনাচে-কানাচে ২০ লাখেরও বেশি প্যাকেজ ডেলিভারি দিয়ে থাকে।

দারাজ ও হাংরিনাক’র এই একীভূতকরণ হাংরিনাকির জন্য ব্যবসায়িক কার্যপরিচালনায় সমৃদ্ধি বয়ে আনবে বলে আশা করা যাচ্ছে। আলিবাবা গ্রুপের মালিকানাধীন দারাজ বাংলাদেশে ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা এবং কাস্টমার সার্ভিস প্রসঙ্গে ইতোমধ্যেই যে দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে, তা নিঃসন্দেহে হাংরিনাক‘র জন্য ইতিবাচক ভূমিকা পালন করবে।

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

হাংরিনাকি দারাজ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.2390 seconds.