• বাংলা ডেস্ক
  • ০৩ এপ্রিল ২০২১ ১৫:২০:০১
  • ০৩ এপ্রিল ২০২১ ১৭:০৪:০১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

পর্যটনকেন্দ্রিক নতুন আইনের প্রস্তাব

লাইসেন্স ছাড়া ভ্রমণ আয়োজন নিষিদ্ধ হচ্ছে

দেশে পর্যটন শিল্পের বিকাশ ও পর্যটকদের স্বার্থ সংরক্ষণের উদ্দেশ্যে নতুন আইনের কথা ভাবছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়। এই আইন অনুমোদিত হলে লাইসেন্স ছাড়া কেউ ভ্রমণ আয়োজন করতে পারবে না।

আজ শনিবার সংসদে এ সংক্রান্ত ‘বাংলাদেশ ট্যুর অপারেটর ও ট্যুর গাইড (নিবন্ধন ও পরিচালনা) বিল ২০২১’ উত্থাপন করেন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী।

বিলটিতে ট্যুর অপারেটর ও ট্যুর গাইডের কার্যক্রম নতুন আইনের আওতায় নিয়ে আসার ব্যাপারে আলোকপাত করা হয়েছে। সংসদে উত্থাপনের পর বিলটি পরবর্তী পর্যালোচনার জন্য বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটিতে পাঠানো হয়েছে।

উত্থাপিত এই নতুন বিল অনুযায়ী, যে কোনো ধরণের ট্যুর অপারেটর ও ট্যুর গাইড পরিচালনার জন্য সরকার নির্ধারিত কতৃপক্ষের কাছ থেকে অবশ্যই সনদ নিতে হবে। আইনটি কার্যকরের তিন মাসের মধ্যেই নিতে হবে এই সনদ।

প্রস্তাবিত আইনে বলা হয়েছে, নিবন্ধন সনদ না নিয়ে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান পর্যটকদের জন্য ভ্রমণ সেবা সংশ্লিষ্ট কোনো সেবা প্রদান করতে পারবে না। এসব সেবার মাঝে রয়েছে আবাসন, আহার বা আপ্যায়ন, পরিবহন, পর্যটন আকর্ষণ সংশ্লিষ্ট স্থান পরিদর্শন, পরিভ্রমণ ইত্যাদি। আবার সনদ না নিয়ে কেউ দলভিত্তিক বা একক ট্যুর আয়োজন, পরিচালনা ও ট্যুর গাইড হিসেবেও কাজ করতে পারবে না।

একই নিয়ম প্রযোজ্য হবে বিদেশি কোনো ট্যুর গাইড বা ট্যুর অপারেটরের ক্ষেত্রেও। তাদেরকেও বাংলাদেশে কার্যক্রম চালাতে হলে সরকারের পূর্বানুমতি নিতে হবে।

কোনো ব্যক্তি আইনের লঙ্ঘণ করলে তার সর্বোচ্চ ৬ মাসের জেল ও দুই লাখ টাকা জরিমানার বিধান করা হয়েছে প্রস্তাবিত আইনে। এই আইনে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে আদালত পরিচালনা করা যাবে।

প্রস্তাবিত আইন নিয়ে প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী বলেন, আইনটি অনুমোদn হলে পর্যটকদের কাঙ্ক্ষিত সেবা পাওয়া সহজ হবে। সংশ্লিষ্ট ট্যুর অপারেটর ও ট্যুর গাইডের কার্যক্রম আইনের আওতায় পরিচালনা করা যাবে। পাশাপাশি সরকারের রাজস্ব আয় বৃদ্ধি পাবে।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0714 seconds.