• বাংলা ডেস্ক
  • ০৫ মে ২০২১ ১২:১৩:১৫
  • ০৫ মে ২০২১ ১২:১৩:১৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

বিএনপির আমলে সকালেই ভোট শেষ হয়েছিল: ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, 'বিএনপির আমলে সকাল ১০টার মধ্যেই ভোট দেওয়া শেষ করা হয়েছিল। তখন চট্টগ্রামের একটি কেন্দ্রে ভোট গণনার আগেই চূড়ান্ত ফল রেডিও, টিভিতে ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল। কাজেই বিএনপির মুখে নিরপেক্ষ নির্বাচন ব্যবস্থার বুলি ভূতের মুখে রাম রাম ধ্বনির মতো।'

মঙ্গলবার (৪ মে) নিজের সরকারি বাসভবনে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, 'গণতন্ত্র নিয়ে কথা বলা বিএনপির মুখে শোভা পায় না। ক্ষমতায় থাকতে তারা ১৫ ফেব্রুয়ারির ভোটারবিহীন নির্বাচনের কলঙ্কিত অধ্যায়ও এদেশে সৃষ্টি করেছে। বিএনপি নেতারা পূর্ণিমার আলো ঝলমল রাতেও অমাবস্যার অন্ধকার দেখতে পান।'

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন ব্যবস্থাকে দলীয়করণ করার রেকর্ডে বিএনপি চ্যাম্পিয়ন। তারা এক কোটি সোয়া লাখ ভুয়া ভোটার দিয়ে আজিজ মার্কা প্রহসনের নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিয়েছিল। মাগুরা ও ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচনের সেই জালিয়াতির কথা দেশের মানুষ এখনো ভুলে যায়নি।‘

‘গণমাধ্যমকে সরকার নিজের মতো করে নিয়েছে’ বিএনপি মহাসচিবের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের  বলেন, ‘গণমাধ্যমের ওপর সরকারের যদি নিয়ন্ত্রণই থাকবে তাহলে প্রতিদিন তারা সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার আর মিথ্যাচার করে কেমন করে?’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সরকারের কোনো উদ্যোগ বিএনপির চোখে পড়ে না। এই সংকটকালে জনগণের জীবন ও জীবিকার মধ্যে ভারসাম্য তৈরিতে সরকারের উদ্যোগের প্রশংসা না করে তারা তোতা পাখির মতো শেখানো বুলি অবিরাম আওড়িয়ে যাচ্ছে। অনবরত মিথ্যাচার এখন তাদের একমাত্র অস্ত্র। সরকারের সবকিছুতে দোষ ক্রটি খুঁজে বের করা বিএনপির মজ্জাগত স্বভাবে পরিণত হয়েছে।‘

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ’অসহায়, কর্মহীন, খেটে খাওয়া নিম্নআয়ের মানুষের জন্য সাড়ে ছত্রিশ লাখ পরিবারকে নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। আওয়ামী লীগ বা দলীয় নেতাকর্মীদের আত্মীয়-স্বজন দেখে নয়, বরং নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া পরিবারের তালিকা করে এবং যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে এসব সাহায্য দেওয়া হচ্ছে। মুখ দেখে দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা এবার যেন কোনোভাবেই বেহাতে না যায় সে ব্যাপারেও এরইমধ্যে কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা বিতরণে কেউ কোনো অপকর্ম ও অনিয়ম করলে তাকে কঠোর শাস্তি পেতে হবে।‘

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0750 seconds.