• ১২ মে ২০২১ ১৪:০১:৩১
  • ১২ মে ২০২১ ১৪:০১:৩১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

বাঘ-কুমির শিকারী ধরিয়ে দিলে নগদ পুরস্কার

সুন্দরবনের প্রাণীসম্পদ রক্ষায় এবার নতুন কৌশল নিয়েছে বনবিভাগ।


সাতক্ষীরা প্রতিনিধি :


সুন্দরবনের প্রাণীসম্পদ রক্ষায় এবার নতুন কৌশল নিয়েছে বনবিভাগ। বাঘ, হরিণ, কুমিরসহ অন্যান্য বন্যপ্রাণী শিকারীদের ধরিয়ে দিতে পারলে বনবিভাগের পক্ষ থেকে পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে।

বনবিভাগ সূত্রে জানা গেছে, সুন্দরবনের ভিতরে বাঘ হত্যাকারী অপরাধীকে ধরিয়ে দিতে পারলে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে সরকার। বনের বাইরে এ ধরণের অপরাধী ধরিয়ে দিলে ২৫ হাজার টাকা দেওয়া হবে। সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জের বুড়িগোয়ালীনি স্টেশন, কদমতলা স্টেশন ও কৈখালী স্টেশন থেকে একযোগে বনবিভাগ ও সিপিজির সদস্যরা মাইকিং ও হ্যান্ডবিলের মাধ্যমে এ প্রচারণা চালাচ্ছে।

প্রচারণায় বনের মধ্যে কুমির হত্যাকারীর জন্য ৩০ হাজার টাকা, বনের বাইরে ১৫ হাজার টাকা। হরিণের ক্ষেত্রে বনের ভিতরে ২০ হাজার টাকা এবং বনের বাইরে ১০ হাজার টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া পাখি ও অন্যান্য বন্যপ্রাণীর ক্ষেত্রে বনের ভিতরে ১০ হাজার টাকা এবং বনের বাইরে ৮ হাজার টাকা করে আর্থিক পুরস্কার প্রদান করা হবে।

এ বিষয়ে সুন্দরবনের কদমতলা স্টেশন কর্মকতা আবু সাঈদ বলেন, ‘সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী, বন অপরাধীদের ধরিয়ে দিতে পারলে পুরস্কারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেটা মানুষকে জানানোর জন্য আমরা প্রচার শুরু করেছি এবং যারা তথ্য দিবে তাদের পরিচয় গোপন রাখা হবে। তিনি আরো জানান, বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় থেকে গত বছরের ২৫ অক্টোবর এ বিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে। সেখানে বলা হয়েছে কোন ব্যক্তি সুন্দরবনের জীব-বৈচিত্র রর্ক্ষাথে বনাঞ্চলে/বাইরে যদি বন অপরাধীদের সাথে জড়িতদের (বিষ দিয়ে মাছ ধরা, বন্যপ্রাণী হত্যা, ফাঁদ দিয়ে হরিণ ও বাঘ শিকার, ধরা, মারা, পাচার করা) বিষয় তথ্যসহ সরাজমিনে ধরিয়ে দিতে পারলে তাদের জন্য সরকারিভাবে আর্থিক পুরস্কারের ব্যবস্থা করা হবে। এসকল অপরাধীদের ধরিয়ে দিতে সংশ্লিষ্ট ফরেস্ট স্টেশনে যোগাযোগ করতে হবে।’ 

 

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1156 seconds.