• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২৩:৫৩:৪৮
  • ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২৩:৫৩:৪৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

আসাম: মুসলিমদের উপরে পুলিশের বর্বরতায় নিহত ২, লাশের উপরে তান্ডব

ছবি : সংগৃহীত

বৃহস্পতিবার মুসলিমদের উপরে চালানো উচ্ছেদ অভিযানকে কেন্দ্র করে আসাম পুলিশ এক ফটোগ্রাফারকে গ্রেফতার করেছে, যে একজন আহত ব্যক্তির ওপর নির্যাতন করেছিল। এদিন দারাং জেলার ধোলপুর–গরুখুঁটি এলাকায় বেআইনি উচ্ছেদ অভিযানকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। জনতা–পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ২ মুসলিমের মৃত্যুর খবর জানা গিয়েছে।

ইতিমধ্যেই ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে, যেখানে এক মুসলিমের লাশের উপরে বর্বর আচরণ করতে দেখা যাচ্ছে। ভিভিওতে দেখা যায়, এক ব্যক্তি লাঠি নিয়ে পুলিশের দিকে দৌড়ে যাচ্ছে। এরপর ওই ব্যক্তির বুকে গুলি করে পুলিশ। তাতে মৃত্যু হয় ওই ব্যক্তির। তারপরেই মৃত ওই ব্যক্তির দেহের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে লাঠি, ঘুসি মারতে দেখা গেল অপর এক ব্যক্তিকে। ধৃত ওই ব্যক্তির নাম বিজয় শঙ্কর বানিয়া, সে পেশায় একজন ফটোগ্রাফার। তাকে আসাম সরকার কর্তৃক উচ্ছেদ অভিযান নথিভুক্ত করার জন্য জেলা প্রশাসন তাকে নিয়োগ করেছিল।

স্থানীয়রা জানিয়েছে, গত বিধানসভা ভোটের সময়ও সে নির্বাচন কমিশনের হয়ে জেলায় কাজ করেছিল। পুলিশ–জনতা সংঘর্ষ বৃহস্পতিবার ধোলপুর গরুখুঁটি এলাকার পরিস্থিতি হিংসাত্মক ঘটনায় পরিণত হয়, যখন সরকারের পদক্ষেপের বিরুদ্ধে প্রতিবাদকারীদের উচ্ছেদ করার চেষ্টা করে পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা। তাদের দমন করতে পুলিশ গুলি চালায়। যার জেরে ২ জন সাধারণ মুসলিমের মৃত্যু হয়। দারাংয়ের এসপি সুশান্ত বিশ্ব শর্মা জানিয়েছেন যে দু’পক্ষের সংঘর্ষের এই ঘটনায় কমপক্ষে দশজন আহত হয়েছেন।

এরই মধ্যে এই ঘটনার একটি বর্বর ভিডিও সামনে আসে এবং তা সোশ্যাল মিডিয়াতেও ভাইরাল হয়। যেখানে দেখা গিয়েছে, গুলিতে নিহত এক মুসলিমকে ওই ফটোগ্রাফার নিগ্রহ করছে। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, গাছের পেছন থেকে শত শত পুলিশ এলোপাথারি গুলি চালিয়ে চলেছে। ভিডিওতে বানিয়াকে এক ব্যক্তির পেছনে দৌড়াতে দেখা যায় যতক্ষণ না নিরাপত্তা রক্ষীরা এসে প্রতিবাদকারীদের ঘিরে ধরে এবং বানিয়াকে সেখান থেকে বার করে দেয়। যদিও ফটোগ্রাফার পুনরায় ফিরে আসে এবং এক নিহত ব্যক্তির বুকের ওপর বসে সামনে থাকা কিছু কুড়িয়ে নিয়ে তাকে মারতে শুরু করে। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে পুলিশ বানিয়াকে সেখান থেকে সরে যেতে বলছে।

জানা গিয়েছে, আসাম সরকার সোমবার দারং জেলার ধোলপুর গরুখুঁটি গ্রামে গত সোমবারও উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছিল স্থানীয় প্রশাসন। এই ঘটনায় প্রায় ৮০০ মুসলিম পরিবার গৃহহীন হয়ে পড়ে। এই এলাকায় যেসব মানুষ বাস করতেন তাদের অধিকাংশই মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ। সূত্র: টিওআই।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

মুসলিম আসাম

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1226 seconds.