• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৫ জুন ২০২২ ১৪:৫৬:০৬
  • ০৫ জুন ২০২২ ১৪:৫৬:০৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

এফ-কমার্স থেকে ই-কমার্সে যাত্রা করল ‘স্টাইল উইথ মি’

ছবি : সংগৃহীত

এফ-কমার্স প্রতিষ্ঠান হিসেবে যাত্রা করা ‘স্টাইল উইথ মি’র নিজস্ব ওয়েবসাইট ও মোবাইল অ্যাপ উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে ১ জুন থেকে প্রতিষ্ঠানটি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে। 

এই উপলক্ষে বুধবার ১ জুন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে ‘দ্যা জাফরান গ্রিল’ রেস্তোরাঁয় এক জমকালো আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্টাইল উইথ মি’র প্রেসিডেন্ট সুমনা কে. রিমি, ইউএস-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির(ইউএসবিসিসিআই) প্রেসিডেন্ট মো. লিটন আহমেদ।

বিউটিফুল লেডিস অব ইউএসএ’র অ্যাডমিন তান্নি আফরিন, ফাহমি সিলভিয়া আখন, নাদিয়া চোধুরী, কুইন্স বিস ইউএসএ’র অ্যাডমিন রুমা আহমেদ, আনিকা তাসনিম, রুপন্তি রুপ, তানজিন সুলতানা, সামাজিক উদ্যোক্তা মোহাম্মদ হিমেল সোসাল এন্টারপেন্নার, ইউএস-বাংলাদেশ চেম্বারের পরিচালক শেখ ফরহাদ এবং সদস্য ওবায়েদ হোসেন, বাংলাদেশ প্রতিদিন উত্তর আমেরিকার নির্বাহী সম্পাদক সাংবাদিক লাভলু আনসার, চ্যানেল আই উত্তর আমেরিকার বিশেষ প্রতিনিধি রাশেদ আহমেদ, এটিএন বাংলা উত্তর আমেরিকার বিশেষ প্রতিনিধি কানু দত্ত, ইউএসএ নিউজ অনলাইনের সম্পাদক শাখওয়াত হোসেন সেলিম, চ্যানেল৭৮৬-এর সম্পাদক মোহাম্মদ শহিদ উল্লাহ সহ যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, মিডিয়া ও গণমাধ্যম প্রতিনিধিগণ।

অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিকল্পনা এবং তদারকির দায়িত্বে ছিলেন বাংলাদেশি-আমেরিকান ব্যবসায়ীদের সংগঠন ইউএসবিসিসিআই https://usbcci.org এবং ইউএস-বিডি সফটওয়্যার অ্যান্ড টেকনোলজি লিমিটেড usbdsoft.com। ‘স্টাইল উইথ মি’এর মোবাইল অ্যাপ ও ওয়েবসাইটের কাজের তদারকির সামগ্রিক বিষয়টি দেখছে ইউএসবিডিসফট।
 
এই প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানটি তাদের গ্রাহকদের জন্য সর্বোচ্চ আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করে থাকে। যারা ইউএসবিসিসিআই’র সদস্য হয়েছেন বা হবেন, তাদের জন্য যেকোনো প্রযুক্তিগত সাপোর্টের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানটিতে নানা ধরনের আকর্ষণীয় সুযোগ-সুবিধা রয়েছে।

ইউএসবিসিসিআই’র প্রেসিডেন্ট মো. লিটন আহমেদ বলেন, এখন খুবই প্রচলিত একটি শব্দ উদ্যোক্তা। পুরো ব্যবসায় যিনি সম্পূর্ণ ঝুঁকি নেন তিনিই উদ্যোক্তা। বর্তমান পৃথিবীতে পুরুষদের পাশাপাশি নারী উদ্যোক্তাদের সংখ্যা আশানুরূপ হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এটা অত্যন্ত ইতিবাচক একটি বিষয়। একজন উদ্যোক্তা নারী নিজের অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি অন্যান্যদেরও কর্মসংস্থান সৃষ্টি করছেন। সুমনা কে. রিমির উদ্যোগে যাত্রা শুরু করা ‘স্টাইল উইথ মি’ এফ-কমার্স প্রতিষ্ঠান থেকে ই-কমার্স জগতে প্রবেশ করছে।

তিনি জানান, যেসব নারীরা উদ্যোক্তা হতে চান, তাদের জন্য ‘স্টাইল উইথ মি’ একটি অনন্য দৃষ্টান্ত হতে পারে। বাংলাদেশি-আমেরিকান নারীরা অনলাইন বিজনেসের মাধ্যমে বিভিন্ন পণ্য সরবরাহ করে ঘরে বসেই যেভাবে একটি শক্তিশালী অর্থনৈতিক ভিত গড়ে তুলতে সক্ষম হচ্ছেন, তা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার।

‘স্টাইল উইথ মি’র উদ্যোক্তা সুমনা কে. রিমি বলেন, একটি স্বাধীন পেশা হিসেবে আমি উদ্যোক্তা হওয়ার পথ বেছে নিয়েছি। প্রথমে আমি স্বল্প পরিসরে শুরু করেছি এফ-কমার্স। আমাদের ফেসবুক পেইজ লিংক https://www.facebook.com/stylewithmeinc এবং https://www.facebook.com/Stylewithme1123 ওয়েবসাইট stylewithmeusa.com। এর মাধ্যমে আমি অনেক দূর পর্যন্ত যেতে চাই। আমি একটু একটু করে ব্যবসাটা ডেভেলপ করছি। এরই ধারাবাহিকতায় এই ওয়েবসাইট ও মোবাইল অ্যাপ লঞ্চিং।

তিনি আরও বলেন, আমি মনে করি, ট্রেন্ড অনুযায়ী ফ্যাশন সম্পর্কে সচেতন থাকার পাশাপাশি এই ব্যবসা যে কেউ বাসায় বসে করতে পারেন। তবে ইচ্ছার পাশাপাশি পরিশ্রমও করতে হবে। বাংলাদেশি-আমেরিকান অনেক নারী আছেন, যারা ঘরের বাইরে গিয়ে চাকরি করতে পারছেন না কিন্তু তারা স্বাবলম্বী হতে চান। সেদিক থেকে ই-কমার্সের মাধ্যমে নারীরা ঘরে বসে ব্যবসা করে স্বাবলম্বী হওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন।

এফ-কমার্স থেকে ই-কমার্সে প্রবেশ করা ‘স্টাইল উইথ মি’র প্রতিশ্রুতি সঠিক পণ্য দ্রুত সময়ে সরবরাহ করা।

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সুমনা কে. রিমির উদ্যোগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ২০১৮ সালে ‘স্টাইল উইথ মি’ নারী উদ্যোক্তাদের একটি এফ-কমার্স প্রতিষ্ঠান হিসেবে যাত্রা শুরু করেছিল। আজ থেকে এটি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরিত হতে যাচ্ছে। ১০০০ ডলার দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি নিজেদের ব্যবসায়ীক যাত্রা শুরু করেছিল। বর্তমানে প্রতি মাসে প্রায় ৭৫ হাজার ডলারের ব্যবসা হয় প্রতিষ্ঠানটিতে। যুক্তরাষ্ট্রে ‘স্টাইল উইথ মি’-এর ৫ জন এবং বাংলাদেশের হাজারিবাগ ফ্যাক্টরিতে আনুমানিক ২০ জন বিক্রয় প্রতিনিধি রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.4662 seconds.