• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ৩০ জুন ২০২২ ১৫:৫৫:১৯
  • ৩০ জুন ২০২২ ১৫:৫৫:১৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

রেঞ্জ দিয়ে পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খোলেন শিবিরকর্মী মাহদি

ছবি : সংগৃহীত

পদ্মা সেতুর অবকাঠামো ক্ষতিসাধনের লক্ষ্যে ভিডিও ধারণ ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অপপ্রচার ও অন্তর্ঘাতমূলক কাজ সম্পাদনকারী মাহদি হাসানকে (২৭) গ্রেফতার করেছে ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি)।

সিটিটিসি জানিয়েছে, গ্রেফতার মাহদি তামিরুল মিল্লাত মাদরাসা থেকে দাখিল ও আলিম শেষ করেছেন। তিনি মাদরাসায় পড়াকালীন শিবিরকর্মী ছিলেন। বুধবার (২৯ জুন) দিনগত রাতে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে ভিডিও ধারণ করা মোবাইল ফোনটি জব্দ করা হয়।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন সিটিটিসি প্রধান মো. আসাদুজ্জামান।

তিনি বলেন, গত ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী আমাদের নিজস্ব অর্থায়নে নির্মিত পদ্মা বহুমুখী সেতুর উদ্বোধন করেন এবং এ দিনটিকে এক গৌরবোজ্জল ঐতিহাসিক দিন হিসেবে অবহিত করেন। একদল অসাধু চক্র পদ্মা সেতু যেন নির্মিত না হয় সেজন্য আগে থেকেই বিভিন্ন অপপ্রচারসহ সেতু ধ্বংস ও ক্ষয়ক্ষতিজনিত কার্যকলাপে লিপ্ত ছিলো। এরই ধারাবাহিকায় পদ্মা বহুমুখী সেতু উদ্বোধনের পর থেকেই বিভিন্ন গোষ্ঠী সেতুর বিরুদ্ধে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হতে দেখা যায়।

এদিকে সিটিটিসি প্রধান বলেন, বাংলাদেশের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের এ মাইলফলক দেশের বর্তমান সরকারের একটি অবিস্মরণীয় সাফল্য। এ সাফল্যকে ছোট করা ও জনগণের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য একটি মহল সর্বদা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর কিছু আসাধু ব্যক্তিকে দেখা যায় যারা স্থাপনায় উঠে বিভিন্ন নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে। এরমধ্যে ২৬ জুন সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা যায়। যেখানে গ্রেফতার মাহদি হাসান সেতুর রেলিংয়ের সঙ্গে সংযুক্ত নাট-বল্টু খুলে প্রদর্শন করে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ২৬ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা যায়, গ্রেফতার মাহদি সেতুর রেলিং থেকে নাট-বল্টু খুলছে, আবার লাগিয়ে দিচ্ছে।

আসাদুজ্জামান বলেন, সিটিটিসি সাইবার ইন্টেলিজেন্স ডিভিশন আগে থেকেই এ বিষয়ে মনিটরিং করে আসছিল এবং থানা থেকে তথ্য পাওয়া মাত্রই তথ্যপ্রযুক্তি ও গোপন সূত্রের ভিত্তিতে আসামি মাহদি হাসানকে (ভিডিওতে অবস্থানকারী ব্যক্তি) শনাক্ত করে। গোয়েন্দা তথ্যমতে জানা যায়, মাহদি লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ উপজেলায় আত্মগোপন করেছে। সিটিটিসি সিটি ইন্টেলিজেন্স অ্যানালাইসিস ডিভিশনের একটি চৌকস টিম রামগঞ্জ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার মাহদির দেওয়া তথ্যানুযায়ী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত অন্য আসামিদের গ্রেফতার কার্যক্রম অব্যাহত আছে।

গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে মুন্সিগঞ্জের পদ্মা সেতু উত্তর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা হয়েছে।

মাহদির কোনো রাজনৈতিক পরিচয় আছে কি না, জানতে চাইলে সিটিটিসি প্রধান বলেন, মাহদি তামিরুল মিল্লাত মাদরাসা থেকে দাখিল ও আলিম পড়াকালীন ছাত্রশিবিরের সঙ্গে যুক্ত হয়।

মাহদি নাট-বল্টু হাত দিয়ে খুলেছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, মোবাইলে ভিডিও ধারণের আগে তিনি গোপনে রেঞ্জ দিয়ে নাট-বল্টু খোলেন। এসময় তার সহযোগীরা এ কাজে তাকে সহায়তা করেন। এরপর ভিডিও ধারণের সময় হাত দিয়ে খুলে তা ভিডিও করে ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করে।

গ্রেফতার মাহদির সহযোগীদের নাম-পরিচয় না জানালেও তাদেরও আইনের আওতায় আনতে অভিযান চলমান রয়েছে বলে জানান সিটিটিসি প্রধান আসাদুজ্জামান।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

শিবিরকর্মী পদ্মা সেতু

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.2733 seconds.