• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৭ জুলাই ২০২২ ১৬:৪৮:৫৩
  • ০৭ জুলাই ২০২২ ১৬:৪৮:৫৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

বাসায় কারেন্ট নেই, নদীর পাড়ে ঘুরতে গিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার কিশোরী

ছবি : সংগৃহীত

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে বাসায় বিদ্যুৎ না থাকায় তীব্র গরমে বাড়ির পাশে নদীর পড়ে ঘুরতে গিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরী। সে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

বুধবার (৬ জুলাই) রাত সাড়ে ৮টায় পৌরসভার পূবপাড়া-জোলাপাড়া এলাকায় করতোয়া নদীর পাড়ে এই ঘটনা ঘটে।

একই দিন রাতে ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে ২ জনের নাম উল্লেখ করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করলে পুলিশ রাতভর অভিযান চালিয়ে পৃথক দুটি জায়গা থেকে অভিযুক্ত ২ যুবককে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার আসামিরা হলেন, ঘোড়াঘাট পৌরসভার জোলাপাড়া গ্রামের বিশু চন্দ্র দাসের ছেলে স্বপন চন্দ্র দাস (২৫) এবং পূর্বপাড়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে মোরসালিন মিয়া (২২)।

ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, বুধবার সন্ধ্যায় ওই কিশোরী তার ১০ বছর বয়সী ফুফাতো বোনকে নিয়ে নদীর পাড়ে বাতাসে ঘুরতে যায়। এ সময় সেখানে তার আরেক কিশোর বন্ধুর সাথে দেখা হলে, তারা তিনজন সেখানে দাঁড়িয়ে গল্প করছিল।

এমন সময় গ্রেফতার আসামিরা সেখানে এসে উপস্থিত হয়ে ওই কিশোরীর বন্ধুকে ভয়ভীতি দেখিয়ে সেখান থেকে চলে যেতে বাধ্য করে। এক পর্যায়ে পাশের একটি পাটক্ষেতে নিয়ে তাকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করে।

এ সময় ওই কিশোরীর সাথে থাকা তার ফুফাতো বোন ভয়ে চিৎকার করে। পরে পাশ্ববর্তী লোকজন ছুটে এলে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়।

ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু হাসান কবির বলেন, আসামিদেরকে বৃহস্পতিবার দুপুরে দিনাজপুরের আদালতে এবং ভিকটিমকে ডাক্তারি পরিক্ষার জন্য দিনাজপুর এম.আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ভিকটিমের পরিধান করা কাপড়সহ বেশ কিছু আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, গ্রেফতার প্রধান আসামি স্বপন চন্দ্র দাসের বিরুদ্ধে পূর্বেরও বেশ কিছু মামলা চলমান রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0804 seconds.