• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২ ২০:১৩:১৪
  • ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২ ২০:১৩:১৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

১৮ বলে ৭৪ রান দেখলো ক্রিকেট বিশ্ব

গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স। ছবি : সংগৃহীত

নিশ্চিত পরাজয় সামনে, চাপ কাটিয়ে উঠতে পারছে না কোন ব্যাটারই। ঠিক তখনি কেউ একজন ব্যাট হাতে ধারণ করলেন রূঢ়মূর্তি, বনে গেলেন গেম চেঞ্জার। যেখানে রান হবার কথা ছিলো সর্বোচ্চ ১৩০/৪০, সেখানে স্কোরবোর্ডে রান সংখ্যা দাঁড়ালো ১৭৮। ধারণার চেয়েও ৪৮/৩৮ রান বেশী। সেটিও মাত্র তিন ওভারে।

এমন ঘটনা ঘটেছে আজ (বৃহস্পতিবার) ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্স ও জ্যামাইকা তালাওয়াসের মধ্যকার ম্যাচে শেষ তিন ওভারে ৭৪ রান সংগ্রহ করেছে গায়ানার ব্যাটাররা। গায়ানার ঘরের মাঠ প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে ওডিন স্মিথ ও কিমো পলের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে রচিত হয়েছে গৌরবময় অধ্যায়।

প্রথমে ব্যাটিংয়ে নামা গায়ানার ১৭ ওভার শেষে সংগ্রহ দাঁড়ায় ৭ উইকেটে ১০৪ রান। এমন পরিস্থিতিতে সর্বোচ্চ কতো রান আশা করা যায়? সর্বোচ্চ ১৩০ থেকে ১৪০। কিন্তু ২০ ওভার শেষে রান সংখ্যা দাঁড়ায় ১৭৮ রানে। শেষ তিন ওভারে ওডিন স্মিথ ও কিমো পল সংগ্রহ করেন ৭৪ রান। আর এতেই ক্রিকেটকে আরেকবার গৌরবময় অনিশ্চয়তার খেলা হিসেবে প্রমাণ করেন তারা।

শেষ তিন ওভারে ওডিন স্মিথ ও পল ছক্কা হাঁকিয়েছেন ৯ টি। শেষ তিন ওভারে ৯ টির বেশী ছক্কা হাঁকাতে পারেনি কোনো দলের ব্যাটাররা। এরআগে ২০১৬ সালে গুজরাট লায়ন্সের বিপক্ষে ৯ টি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন বিরাট কোহলি ও এবিডি ভিলিয়ার্স। 

গায়ানার ব্যাটাররা শেষ ৩ ওভারে সংগ্রহ করেছে ৭৪ রান। যেকোনো ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগে শেষ তিন ওভারে এটি ছিলো দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান। এরআগে ২০১৬ সালে আরসিবির ব্যাটাররা শেষ তিন ওভারে ৭৫ রান সংগ্রহ করে নিজেদের রেখেছেন সবার উপরে। তিনে রয়েছে বিপিএলের একটি ম্যাচ। ২০১৯ সালে কুমিল্লার বিপক্ষে শেষ ৩ ওভারে ৭২ রান সংগ্রহ করেছিলো চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জারসের ব্যাটাররা।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.2988 seconds.