• বিনোদন প্রতিবেদক
  • ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ ২০:২২:৪৫
  • ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ ২০:২২:৪৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

মন্ত্রী হতে চান ইলিয়াস কাঞ্চন!

ছবি : সংগৃহীত

ঢালিউদের জনপ্রিয় নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। একের পর এক সিনেমা দিয়ে জয় করেছেন দর্শকদের ভালোবাসা। সেই সঙ্গে সড়ক আন্দোলনের নানা কার্যক্রমের সঙ্গেও তিনি সব সময় নিয়োজিত থাকেন। এ ছাড়া বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বর্তমান সভাপতি তিনি। সম্প্রতি এই জনপ্রিয় নায়ক মন্ত্রী কিংবা রাজনীতিতে আসার বিষয়ে নানা প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন।

এক সাক্ষাৎকারে সাংবাদিকদের ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, মন্ত্রিত্ব দিলে তার পূর্ণ ক্ষমতা ব্যবহার করতে দিতে হবে। বহু মন্ত্রী আছেন তারা কিন্তু পূর্ণ ক্ষমতা ব্যবহার করতে পারেন না।

রাজনীতিতে আসতে চান কি-না জানতে চাইলে তিনি জানান, অবশ্যই আমি রাজনীতি করতে চাই। কারণ, আমি দেশের মানুষের জন্য যা করতে চাই, করতে পারছি না। আমি দেখেছি যে এই একটাই জায়গা আছে ‘রাজনীতি’। এটা ছাড়া আসলে রাষ্ট্র এবং দেশের পরিবর্তন সম্ভব না। রাজনীতির অবশ্যই প্রয়োজন আছে। তবে কোন এলাকা থেকে করব সেটা এই মুহূর্তে আমি বলতে চাই না। এগুলো সম্পূর্ণই আমার মনের ভাবনা।

তিনি আরও বলেন, এর আগে এমপি হওয়ার জন্য অনেক আলোচনা হয়েছে। একজন এমপি কি করতে পারে, কি করে এমপিরা, তার কি ক্ষমতা আছে। মানুষের আকাঙ্ক্ষাই যদি পূরণ না করতে পারি, তাহলে আমি এমপি হতে চাই না। সোশ্যাল মিডিয়ায় লাখ লাখ মানুষ আমাকে কি হিসেবে চায় সেটা আপনারা দেখেন না? এখন মনে করনে, কিছু শিল্পী আছেন তাদেরকে আমরা আজীবন সদস্যপদ দিয়েছি। এখন সিনিওর শিল্পী যারা আছেন সূচন্দা ম্যাড্যাম, ববিতা ম্যাডাম, ফারুক ভাই আছেন, এ ছাড়া আমাদের সোহেল ভাই আছেন। এখন তারা যদি তাদের যে অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে নেতৃত্ব দিতে চায়, তাহলে অবশ্যই আমরা তাদের সম্মানের সঙ্গে গ্রহণ করব।

আমার ইচ্ছা হচ্ছে জনগণ আমার কাছে যেটা চায় সেই অভাব, সেই চাওয়া, তার প্রতিফলন যদি ঘটাতে পারি, তাহলে একটা কাজের দায়িত্ব নিতে পারি। যেমন শিল্পী সমতিতে আমি আসতে চাই নাই, সবাই আমাকে জোর করে নিয়ে এসেছে। আমি কি এই আট মাসে কিছুই করতে পারিনি, আপনারাই বলেন? আমি যতক্ষণ নেতৃত্ব দেওয়ার জায়গাটা ফিল না করব, ততক্ষণ পর্যন্ত কিছু করতে পারব না।

সড়ক আন্দোলন সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সড়ক আন্দোলনে ঘাটতি তো অবশই আছে। সড়ক দুর্ঘটনা রোধ করতে হলে সরকারের ইচ্ছা থাকতে হবে, পরিকল্পনা থাকতে হবে। সরকারকে কাজগুলো করতে হবে, সরকারকে যুগোপযোগী আইন করতে হবে, সেগুলোকে বাস্তবায়ন করতে হবে। সরকারকে সড়ক নির্মাণ করতে হবে। রাস্তায় আনফিট গাড়ি যেন না চলে তাকেই ব্যবস্থা করতে হবে। এবং যারা সড়ক ব্যবহার করে, তাদেরকে সঠিক নিয়ম, আইন-কানুন শেখাতে হবে। এই কাজগুলো সরকারকে করতে হবে। সরকার যদি সব কিছু ঠিকমতো পালন না করে, তাহলে আমরা যারা সোশ্যাল মিডিয়ায় কাজ করি আমরা কি করতে পারি। সর্বোচ্চ ছাত্রদেরকে বোঝাতে পারি। সড়ক দুর্ঘটনা রোধ করতে ইচ্ছাটা থাকা দরকার। আমি বহুবার সড়ক মন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন অনেক অসহায়, কার কাছে অসহায় সেটা আপনারা বুঝে নেন। আমার বিরুদ্ধে অপ্রচার তো এখনও বন্ধ হয়নি। আমি যে টার্মিনালে ড্রাইভারদের ট্রেনিং করাতে যেতাম সেখানে আমাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়েছে। আমি এখনও সেখানে যেতে পারছি না।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

ইলিয়াস কাঞ্চন

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.3032 seconds.