• বিদেশ ডেস্ক
  • ১০ অক্টোবর ২০২২ ১৫:০৩:০৮
  • ১০ অক্টোবর ২০২২ ১৫:০৩:০৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

মায়ের বুকের দুধেও প্লাস্টিক কণা

ছবি : সংগৃহীত

মায়ের বুকের দুধে প্রথমবারের মতো মাইক্রোপ্লাস্টিক পাওয়া গেছে। ইতালির বিজ্ঞানীদের একটি দল এ তথ্য জানিয়েছে।

সম্প্রতি সন্তান জন্ম দেওয়ার এক সপ্তাহ পর ইতালির ৩৪ জন সুস্থ মায়ের দুধের নমুনা পরীক্ষা করেছেন বিজ্ঞানীরা। এদের মধ্যে তিন-চতুর্থাংশের দুধে ক্ষুদ্র প্লাস্টিক কণা সনাক্ত করা হয়েছে বলে দ্য গার্ডিয়ান জানিয়েছে। 

গবেষকরা জানিয়েছেন, শিশুরা রাসায়নিক দূষকগুলোর জন্য বিশেষভাবে ঝুঁকিপূর্ণ থাকে। তাই বিষয়টি নিয়ে আরও গবেষণা জরুরিভাবে প্রয়োজন। তাদের ভাষ্য, দূষণকারী ক্ষুদ্র প্লাস্টিক কণার উপস্থিতির কারণে শিশুদের স্তন্যপান এখন অনেক বেশি ক্ষতিকারক।

ক্ষুদ্র প্লাস্টিক কণা হল পাঁচ মিলিমিটারের কম দৈর্ঘ্যের যেকোনো ধরনের প্লাস্টিকের টুকরো। আগের গবেষণায় মানব কোষ, গবেষণাগারের প্রাণি এবং সামুদ্রিক প্রাণিতে ক্ষুদ্র প্লাস্টিক কণার উপস্থিতি জানা গিয়েছিল। কিন্তু জীবিত মানুষের উপর এর প্রভাব অজানা রয়ে গেছে। সাম্প্রতিক গবেষণায়, বিজ্ঞানীরা ক্ষুদ্র প্লাস্টিকের কারণে সৃষ্ট ঝুঁকিগুলি তুলে ধরেছেন।

গবেষণায় দেখা গেছে, মায়েরা প্লাস্টিকের মোড়কে রাখা দুধ ও অন্যান্য পানীয় পান করে থাকেন। এছাড়া ব্যক্তিগত পরিচ্ছন্নতার জন্য তারা প্লাস্টিকযুক্ত পণ্য ব্যবহার করেন। কিন্তু বুকের দুধের সঙ্গে এই প্লাস্টিক পণ্য থেকে উদ্ভূত কণার সম্পর্ক পাওয়া যায়নি। তাই পরিবেশে প্লাস্টিক কণার সর্বাত্মক উপস্থিতি মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে।

ইতালির ইউনিভার্সিটা পলিটেকনিকা ডেলে মার্চের ডা. ভ্যালেন্টিনা নোটারস্টেফানো বলেছেন, ‘মায়ের দুধে ক্ষুদ্র প্লাস্টিক কণার উপস্থিতির প্রমাণ শিশুদের অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ । গর্ভাবস্থা ও স্তন্যপান করানোর সময় এই দূষকগুলোর বিস্তার কমানোর উপায়গুলি মূল্যায়ন করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

সংশ্লিষ্ট বিষয়

প্লাস্টিক কণা

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.3129 seconds.